উন্মুক্ত, আসলামদের ডেস্টিনেশন মার্কিন মুলুক

নয়াদিল্লি : এ যেন হোসেন মিয়াঁর ময়না দ্বীপ।

মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদ্মানদীর মাঝির নিখুঁত বাস্তবায়ন কি এবার দেখা যাবে ক্রিকেটের ময়দানে? প্রশ্নটা উসকে দিচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উপস্থিতি। নিজের দেশে সুযোগ না পেয়ে ভারত, পাকিস্তান সহ উপমহাদেশ ও তার বাইরের অনেক ক্রিকেটারের এখন নেক্সট ডেস্টিনেশনের নাম ইউএসএ। প্রাক্তন পাক ওপেনার সামি আসলামের মন্তব্য নতুন করে জল্পনা উসকে দিয়েছে।

- Advertisement -

পাকিস্তানের হয়ে ১৩টি টেস্টে খেলেছেন আসলাম। তারপর ক্রমশ জাতীয় দল থেকে ব্রাত্য হয়ে যান। শেষে কেরিয়ারে দিশা খুঁজতে পাড়ি জমান মার্কিন মুলুকে। এখন সে দেশের জার্সিতে প্রত্যাবর্তনের স্বপ্ন দেখছেন তিনি। একা আসলাম নয়, স্বপ্ন দেখা এমন ক্রিকেটারদের তালিকা বেশ দীর্ঘ। ভারতের হয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলা বেশ কিছু ক্রিকেটার সেই তালিকায় রয়েছেন। নাম রয়েছে ২০১২-র অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী ভারত অধিনায়ক উন্মুক্ত চন্দের।

হঠাৎ ক্রিকেটারদের মধ্যে এই মার্কিনমুখী ভাবনা কেন? আসলাম বলেন, ৩০-৪০ জন বিদেশি ক্রিকেটার ইতিমধ্যে আমেরিকায় পৌঁছে গিয়েছেন। তালিকায় নাম রয়েছে উন্মুক্ত চন্দ, সমিত প্যাটেল, হরমিত সিংয়ের মতো অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে নজরকাড়া ভারতীয় ক্রিকেটাররা। নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটাররাও রয়েছেন। ক্রিকেটের উন্নতির বিষয়টিকে বেশ গুরুত্ব দিচ্ছে মার্কিন ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। শুধু উন্নতি নয়, ক্রিকেটের সেরা মঞ্চে নিজেদের তুলে ধরতে তারা মরিয়া।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান হেড কোচ জে অরুণকুমার। অতীতে তিনি আইপিএলে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের (বর্তমান নাম পঞ্জাব কিংস) ব্যাটিং কোচ ছিলেন। কোচিং করিয়েছেন রনজি দলেও। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সপ্তাহ শেষে লিগ টুর্নামেন্ট আয়োজন করা ও সেই টুর্নামেন্ট থেকে স্থানীয় মুখ তুলে আনার কাজটাও চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তবে দলের ভিত্তি যে ভিনদেশীয় ক্রিকেটাররা সেটা স্পষ্ট আসলামের কথায়।