অগ্নিদগ্ধ হয়ে গৃহবধূর মৃত্যুর ঘটনায় চাঞ্চল্য

88

ফাঁসিদেওয়া, ৫ সেপ্টেম্বরঃ অগ্নিদগ্ধ হয়ে গৃহবধূর মৃত্যুর ঘটনায় চাঞ্চল্য ছাড়ালো। শুক্রবার গভীর রাতে ফাঁসিদেওয়া ব্লকের জালাস নিজাম তারা গ্রাম পঞ্চায়েতের নির্মলজোত রেলওয়ে আন্ডারপাসের কাছে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। মৃতার নাম সুধারাণী সরকার (৪৫)। মৃতার পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই রাতে মহিলা বাড়িতে আবর্জনা পোড়াচ্ছিলেন। সে সময় বাড়ির সকলে ঘরে ছিলেন। হঠাৎ তাঁর শাড়িতে আগুন ধরে যায়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় হাল্লা পড়ে যায়। সকলে মিলে তাঁকে উদ্ধার করে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যান। কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই রাতেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পেশায় মাছ বিক্রেতা মৃতার স্বামী রাধাকান্ত সরকার জানিয়েছেন, সংসারে কোনও অশান্তি ছিল না। মহিলা আগে অন্যের বাড়িতে ঘরের কাজ করতেন। মৃতরা বড় ছেলের স্ত্রী সুবর্ণা সরকার এবং মেজো ছেলের স্ত্রী রত্না সরকার জানিয়েছেন, বাড়িতে কোনও ঝামেলা হয়নি। মাঝেমাঝে রাতে তিনি আবর্জনা পোড়াতেন। ওই রাতে আগুন জ্বালাতে গিয়ে গায়ে আগুন লেগে যায়। মহিলার বড় ছেলে শম্ভু সরকার চার বছর আগে বিয়ে করেছে। সে আবগারি দপ্তরে চাকরি করেন। মেজোছেলে সিন্ধু সরকার তিন বছর আগে বিয়ে করেছে। সে আইটিবিপিতে কর্মরত। ছোট ছেলে বিন্দু সরকার বাড়িতেই থাকে। এদিকে, ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী জানিয়েছেন, গত কয়েকবছর আগে মহিলা কাজ ছেড়ে দিয়েছেন। লকডাউনের কারণে সুধারাণী দেবীর স্বামীও মাছ বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছেন। পারিবারিক অশান্তি হয়ে থাকতে পারে। তবে, তা স্পষ্ট নয়। শনিবার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের পর মৃতার দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। এদিকে, ঘটনার সঠিক কারণ জানতে মাটিগাড়া থানার পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্তে নেমেছে বলে জানা গিয়েছে।