পরকীয়ার জেরে খুন! যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় আটক গৃহবধূ

74

সিউড়ি: যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যুর নেপথ্যে কি পরকীয়া! বিষয়টি ভাবিয়ে তুলছে তদন্তকারীদের। সেক্ষেত্রে, হজরতপুর গ্রামের বাসিন্দা ইন্দ্রজিৎ সূত্রধরের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনার তদন্তে নেমে মঙ্গলবার এক গৃহবধূ এবং তাঁর স্বামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে কাঁকড়তলা থানার পুলিশ। অন্যদিকে, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত যুবক ইন্দ্রজিৎ সূত্রধর (৩৭) হজরতপুর গ্রামের ৪৬ নম্বর ওয়ার্ড বিজেপির বুথ সভাপতি পদে ছিলেন। এদিন সকালে গ্রামে থেকে কিছুটা দূরে বিশ্বরূপ মন্দির লাগোয়া একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে গলায় গামছার ফাঁস লাগানো অবস্থায় তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। মৃতের চোখ বাঁধা ছিল সাদা রুমাল দিয়ে। হাত বাঁধা ছিল প্লাস্টিকের দড়ি দিয়ে। অন্যদিকে, পা বাঁধা ছিল জামা দিয়ে। ঘটনা প্রসঙ্গে স্থানীয়দের বক্তব্য, কেউ হাত-পা-চোখ বেঁধে আত্মহত্যা করবে না। ওই যুবককে খুন করা হয়েছে বলে অনুমান তাঁদের। একই দাবি মৃতের বাবা রঘুনাথবাবুর। তিনি বলেন, ‘ছেলেকে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। খুনিদের কঠোর শাস্তি চাই।’

- Advertisement -

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে খবর, প্রতিবেশী এক গৃহবধূর সঙ্গে সম্পর্ক ছিল মৃতের। চলতি বছরের ২৮ জুলাই ওই গৃহবধূকে নিয়ে তারাপীঠ পালিয়ে গিয়েছিলেন তিনি৷ গত সোমবার গৃহবধূকে দুবরাজপুরে ছেড়ে দেন তিনি। পরে গৃহবধূ বাড়ি ফিরে সমস্ত ঘটনা জানান। ঘটনার প্রেক্ষিতে ইন্দ্রজিতের বিরুদ্ধে কাঁকড়তলা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই গৃহবধূর স্বামী। অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরদিনই ইন্দ্রজিতের মৃতদেহ উদ্ধার হয়৷ ঘটনায় বাড়ছে রহস্য।

জেলা পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী জানিয়েছেন, তদন্ত চলছে। দু’জনকে আটক করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট দেখে পরবর্তী তদন্ত শুরু হবে।