ইটভাটা কর্মীকে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ

303

বর্ধমান: ইটভাটার আর্থ মুভার অপারেটরের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হল ভাটা থেকেই। মৃতের নাম প্রতীক মণ্ডল (২৪)। ঘটনাকে পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী থানার সাজিয়ারা গ্রামে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মৃতের পরিবারের অভিযোগ, টাকা পয়সা নিয়ে ইটভাটা মালিকের সঙ্গে ঝামেলা হওয়ায় প্রতীককে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। বুধবার কালনা মহকুমা মহকুমা হাসপাতালের পুলিশ মর্গে দেহের ময়নাতদন্ত হয়েছে। পূর্বস্থলী থানার পুলিশ খুনের মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতীক মণ্ডলের বাড়ি পূর্বস্থলী ২ ব্লকের মধ্য সাজিয়ারা গ্রামে। গত দু’বছর ধরে তিনি পূর্বস্থলীর পারুলিয়ার বড়গাছি এলাকার লুনা ইটভাটার গাড়ি চালকের কাজ করছিলেন। মৃতের বাবা গোপাল মণ্ডলের দাবি, ছেলে আত্মহত্যা করতে পারে না। পাওনা টাকা চাওয়ার জন্য ইটভাটা মালিকের সঙ্গে ছেলের ঝামেলা হয়। তারই বদলা নিতে ইটভাটার মালিক প্রতীককে গলায় ফাঁস দিয়ে মেরে ভাটার একটি ঘরে ঝুলিয়ে দিয়েছেন। মঙ্গলবার বিকালে সেই ঘরে পৌঁছে তাঁরা ছেলের মৃতদেহ দেখতে পান। ইটভাটার বেশ কিছু শ্রমিক এই কাজে যুক্ত থাকতে পারেন বলে মৃতের বাবার দাবি। মৃতের মা তপতি মণ্ডল জানান, তাঁরা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ।

- Advertisement -

ইটভাটার কর্মী সনাতন হাঁসদা জানান, প্রতীকের সঙ্গে ভাটা মালিকের ঝামেলা হতে তাঁরা কোনও দিন দেখেননি। কীভাবে এমন ঘটনা ঘটল, ভাটার কেউই তা বুঝে উঠতে পারছেন না। একই কথা বলেছে ভাটার মালিকপক্ষ।

পূর্বস্থলী থানার এক অফিসার জানান, মৃতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে খুনের মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। তবে পরিবারের তরফে নির্দিষ্ট কারও নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। এদিন মৃতদেহের ময়নাতদন্ত হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে এলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। তার ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে।