কেরলে অস্বাভাবিক মৃত্যু মাথাভাঙ্গার যুবকের

344

ঘোকসাডাঙ্গা: কেরলে কাজ করতে যাওয়া মাথাভাঙ্গা ২ ব্লকের এক পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হল। মৃত শ্রমিকের নাম শুভজিৎ দাস(২৪)। পুলিশ-প্রশাসনের অনুমতিতে মৃতদেহ গ্রামে ফেরানো হচ্ছে বলে খবর।

পুলিশ সুত্রে খবর,শুভজিৎ দাস মাথাভাঙ্গা ২ ব্লকের ঘোকসাডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের ছোট শিমুলগুড়ি এলাকার বাসিন্দা। কর্মসূত্রে তিনি কেরলে থাকতেন। প্রতিমাসের প্রথম সপ্তাহের মতো শুভজিৎ দাস শনিবার বাড়ির অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠায়। কিন্তু, রবিবার সকালে ফোন মারফৎ পরিবারের কাছে খবর আসে শুভজিৎ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এই খবর পাওয়ার পরেই ঘোকসাডাঙ্গা থানায় যোগাযোগ করে কেরল থেকে মৃতদেহ আনার ব্যবস্থা করা হচ্ছে পরিবারের তরফে। তবে, কী কারণে সে আত্মহত্যা করল তা বুঝে উঠতে পারছে না পরিবারের সদস্যরা।

- Advertisement -

এদিকে ঘোকসাডাঙ্গা পুরান থানা চৌপতি এলাকায় কীট নাশক খেয়ে মৃত্যু হল এক মাঝ বয়সী ব্যক্তির। মৃত ব্যক্তির নাম নিরঞ্জন দাস(৫৭)। শনিবার সন্ধ্যায় কীট নাশক খেয়ে গুরুতর আহত হন তিনি। তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে ঘোকসাডাঙ্গা ও পরে কোচবিহার সরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রবিবার সেখানেই মৃত্যু হয়।ময়নাতদন্তের পর মৃতদেহ নিয়ে এসে সৎকার করা হয়েছে বলে তার পরিবার সূত্রে খবর। কী কারণে এই দুর্ঘটনা তা বুঝে উঠতে পারছে না পরিবার।