করোনায় মৃত্যু উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রীর

359

অনলাইন ডেস্ক: করোনা যুদ্ধে হার মানলেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী। ১৪ দিন লড়াইয়ের পর মৃত্যু হল উত্তরপ্রদেশের ক্যাবিনেটমন্ত্রী কমলরানি বরুণের (৬২)। রবিবার সকালে লখনউয়ের এক হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ কমলরানি মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন।

১৮ জুলাই কমলরানিকে লখনউয়ের সঞ্জয় গাঁধী পোস্টগ্র্যাজুয়েট মেডিক্যাল সায়েন্সেস ইনস্টিটিউট (এসজিপিজিআই)-এ ভর্তি করা হয়। সেদিনই তাঁর লালা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর থেকে সেখানেই চিকিৎসা চলছিল তাঁর। এসজিপিজিআই-এর ডিরেক্টর রাধাকৃষ্ণ ধীমান বলেন, ফুসফুসে সংক্রমণের কারণে ক্রমেই তাঁর শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে শুরু করে। ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছিল তাঁকে। আমরা সবরকম চেষ্টা করলেও আজ সকালে হার মানেন তিনি।

- Advertisement -

কমলরানি কানপুরের ঘটমপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন। যোগী সরকারের কারিগরি দপ্তর সামলানোর পাশাপাশি তিনি সমাজসেবার কাজও করতেন। পাশাপাশি তিনি দুবার লোকসভায় সাংসদ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। তাঁর মৃত্যু খবরে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ পূর্বনির্ধারিত অযোধ্যা সফর বাতিল করেন।

যোগী আদিত্যনাথ শোকবার্তায় লিখেছেন, উত্তরপ্রদেশ সরকারের মন্ত্রী কমলারানি বরুণের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই। তিনি কোভিড পজিটিভ ছিলেন এবং এসজিপিজিআই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তিনি একজন জনপ্রিয় জননেতা এবং একজন সমাজকর্মী ছিলেন। তিনি মন্ত্রিসভার অংশ হয়ে দক্ষতার সঙ্গে কাজ করেছিলেন।

তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। রাষ্ট্রপতি লিখেছেন, উত্তরপ্রদেশ সরকারের মন্ত্রী শ্রীমতি কমলরানি বরুণের অকালমৃত্যুতে আমি শোকাহত। তৃণমূল স্তরের মানুষের সেবা করার জন্য তিনি পরিচিত ছিলেন। তিনি দুবার লোকসভায় সাংসদ হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তাঁর পরিবার ও অনুরাগীদের প্রতি আমার সমবেদনা রইল।

মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহানও তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন। কোভিড পজিটিভ অবস্থায় আপাতত তিনি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তিনি টুইটারে লিখেছেন, উত্তরপ্রদেশ সরকারের ক্যাবিনেটমন্ত্রীর অকালমৃত্যুর খবরটি দুঃখজনক। ঈশ্বরের কাছে তাঁর আত্মার শান্তিকামনার পাশাপাশি তাঁর পরিবারকে প্রার্থনা করছি ঈশ্বরে যেন তাঁর পরিবারকে শোকবহনের শক্তি দেন।