লখনউ, ২০ নভেম্বরঃ জোর করে বিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল হোম কর্ত্রীর বিরুদ্ধে। জানা গিয়েছে, সরকারি অর্থ কাজে লাগিয়ে ওই ৯ জন তরুণীকে জোর করে বয়স্ক ও শারীরিক অক্ষম পাত্রের সঙ্গে বিয়ে দেওয়া হয়।

গত ৫ অগাস্ট উত্তরপ্রদেশের দেওরিয়ার এক হোম থেকে পালিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ জানায় ১১ বছরের এক কিশোরী। হোমে আবাসিকদের উপর যৌন নিগ্রহ, শাস্তি দেওয়ার নামে শারীরিক অত্যাচার এইসব জানার পরে হোম কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তদন্তে জানা গিয়েছি, ওই হোমের কর্ত্রী নয় জন আবাসিক মেয়েকে তাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর করে বিয়ে করতে বাধ্য করেছে। এমনকি বিয়ে দেওয়ার জন্য পাত্রের বাবা-মায়ের থেকে মোটা টাকা নেওয়া হয় বলেও অভিযোগ। এই ঘটনায় এলাহাবাদ হাইকোর্টে চার্জশিট জমা করেছে পুলিশ।

ছবিঃ সংগৃহীত