বর্ধমান ৩০ নভেম্বরঃ শবযাত্রীদের গাড়ি আটকে হেনস্তা ও চালককে মারধরের অভিযোগ উঠল ২ নম্বর জাতীয় সড়কে পূর্ব বর্ধমানের পালসিট টোল প্লাজার  কর্মীদের বিরুদ্ধে। আক্রান্তদের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার মেমারি থানার  পুলিশ মলয় ঘোষ নামে টোল প্লাজার এক কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। ধৃতের  বাড়ি কাটোয়া মহকুমার  কেতুগ্রাম থানার  মোরগ্রামে। রবিবার ধৃতকে বর্ধমান  আদালতে পেশ করা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।  পালসিট  টোল প্লাজার কর্মীদের এমন মস্তানি সুলভ অচরনের বিরুদ্ধে এদিন সবর হন সমস্ত যানবাহন চালকরা।
পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, শবযাত্রীরা গাড়িতে চড়ে এদিন বেলায় কলকাতা থেকে বেনারস যাচ্ছিলেন। শব গাড়িটি বেরিয়ে যাওয়ার পর চারচাকা গাড়িতে থাকা শবযাত্রীরা পালসিট টোলপ্লাজায় টোল দিতে দাঁড়ায়। শবযাত্রী অরুণ পাণ্ডে বলেন, সমস্ত গাড়ির টোল তারা মিটিয়ে দেন।  কিন্তু টোলপ্লাজার কর্মীরা রসিদ না দিয়ে তাঁদের  গাড়ি রাস্তার একপাশে গাড়ি দাঁড় করিয়ে দিয়ে অপেক্ষা করতে বলে। অরুণ পাণ্ডে জানান, তাঁরা এই ঘটনার প্রতিবাদ করতেই টোল প্লাজার কর্মীরা তাঁদের উপর চড়াও হয়। তাঁদের গাড়ির  চালককে মারধর করার পাশাপাশি  গাড়িতে ভাঙচুর চালায়’। শবযাত্রীরা জানান, টোল প্লাজার কর্মীদের এই মস্তানি সুলভ আচরণ নিয়ে এদিনই তাঁরা মেমারি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।  পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের বেনারস যাবার ব্যবস্থা করে দেবার পাশাপাশি  টোল প্লাজার এক কর্মীকে গ্রেফতার  করেছে । পালসিট টোলপ্লাজার ম্যানেজার লম্বোদর পুষ্টি যদিও দাবি করেছেন, তাদের কোনো কর্মী শবযাত্রীকে মারধোর ও গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত নয় ।