নয়াদিল্লি, ৪ এপ্রিলঃ ভারতীয়দের সম্পর্কে একটি প্রচলিত ধারণা হল যে, ভারতের অঙিকাংশ মানুষই নিরামিশভোজী। তবে সম্প্রতি এএফপির করা একটি গবেষণায় প্রকাশ, প্রায় ২০ শতাংশ ভারতীয় নিরামিষভোজী।

ভারতের মোট জনসংখ্যার ৮০ শতাংশ হিন্দু। দেখা গিয়েছে তারাই সবচেয়ে বড়ো মাংসাশী শ্রেণী। এমনকি উচ্চবর্ণের হিন্দুদের এক-তৃতীয়াংশ নিরামিষভোজী। ন্যাশনাল ফ্যামিলি হেলথ সার্ভে অনুযায়ী ভারতের সবচেয়ে বেশি নিরামিষভোজী রয়েছেন, ইন্দোর(৪৯%), মিরাট(৩৬%), দিল্লি(৩০%), নাগপুর(২২%), মুম্বাই(১৮%), হায়দ্রাবাদ(১১%), চেন্নাই(৬%), কলকাতা(৪%)।

তবে গবেষক নটরাজন এবং জ্যাকব বলছেন, এদের মধ্যে গরুর মাংসভোজী মানুষের সংখ্যা এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। সরকারি পরিসংখ্যানে বলা হচ্ছে, অন্তত ৭ শতাংশ ভারতীয় গরুর মাংস খায়। লক্ষ লক্ষ ভারতীয়- দলিত, মুসলিম এবং খ্রিস্টান গরুর মাংস খায়। গবেষক ডঃ নটরাজন এবং ডঃ জ্যাকব বলেন, বাস্তবে প্রায় ১৫ শতাংশ ভারতীয় অর্থাত্‍ ১৮ কোটি মানুষ গরুর মাংস খায়।

সরকার যে পরিসংখ্যান তুলে ধরেছে এটি তার চেয়ে ৯৬ শতাংশ বেশি। সুতরাং এটা পরিষ্কার, অধিকাংশ ভারতীয় মাংস খায়। সেটা হতেই পারে মুরগি, খাসি কিংবা পাঁঠার মাংস। অনেকেই মাংস নিয়মিত খান, আবার অনেকে মাঝে মধ্যে খান। তবে অধিকাংশ ভারতীয় নিরামিষভোজী নয়।