বহুদিন পর একমঞ্চে শুক্রা-জোসেফ

604

চালসা: দীর্ঘদিন পর কোনো রাজনৈতিক মঞ্চে একসাথে দেখা গেল নাগরাকাটা বিধানসভার বর্তমান বিধায়ক শুক্রা মুন্ডা ও প্রাক্তন বিধায়ক জোসেফ মুন্ডাকে। শনিবার মেটেলি ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে চালসায় এক জনসভা করা হয়। সেই সভার মঞ্চেই তাদের পাশাপাশি বসে থাকতে দেখা যায়।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরেই শুক্রা মুন্ডা ও জোসেফ মুন্ডার মধ্যে দূরত্ব গড়ে উঠেছিল। যা নিয়ে তৃণমূলের অন্দরেই প্রশ্ন ওঠা শুরু করেছিল। জোসেফ ও শুক্রা আলাদাভাবেই রাজনৈতিক ও অন্যান্য কর্মসূচি করছিল। কিন্তু এদিন তাদের একসাথে দেখা গেল। তাদের দূরত্ব নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে নানান প্রশ্ন ওঠা শুরু করেছিল। বিরোধীরাও তাদের এই দূরত্বকে হাতিয়ার করে প্রচার করছিল।

- Advertisement -

এদিন জোসেফ ও শুক্রা মুন্ডাকে সাথে নিয়েই সভা হয়। সভার পর চালসা গোলাইয়ে বিরশা মুন্ডার মূর্তিতে মাল্যদান ও প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করা হয়। বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে চালসায় জনসভা করল তৃণমূল কংগ্রেস।

এদিন মেটেলি ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের ডাকে চালসার ডাবলুবিটিজিই-এর ময়দানে ওই সভা হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এসজেডিএ চেয়ারম্যান বিজয় চন্দ্র বর্মন, বিধায়ক শুক্রা মুন্ডা। জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি কৃষ্ণকুমার কল্যাণী বিশেষ কারণবশত আসতে পারেননি।

এদিনের সভায় বিজেপির বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখেন বক্তারা। এনআরসি, সাম্প্রদায়িক সহ নানান ইস্যুতে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হন নেতারা। সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক জোসেফ মুন্ডা, ব্লক সভাপতি আশিস কুন্ডু, ব্লক মহিলা নেত্রী স্নোমিতা কালানদী, এসসি/এসটি/ওবিসি সেলের ব্লক সভাপতি তজমল হক, মহেন্দ্র প্রধান সহ ব্লকের পাঁচটি অঞ্চলের অঞ্চল সভাপতিরা। সভায় ব্লকের বিভিন্ন চা-বাগান ও গ্রাম্য এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এসজেডিএ চেয়ারম্যান বিজয় চন্দ্র বর্মন বলেন, ‘বিরশা মুন্ডা একজন সংগ্রামী ব্যক্তি ছিলেন। উনার জন্ম মাস চলছে। তাই উনাকে শ্রদ্ধা জানানো হল।‘

জোসেফ ও শুক্রার দূরত্ব বিষয়ে তিনি বলেন, তৃণমূলে কারও সাথে কারও দূরত্ব নেই। এটা বিরোধীদের রাজনৈতিক প্রচার। তৃণমূলে সবাই এক।