ভিয়েনায় সন্ত্রাসবাদী হামলায় জঙ্গি সহ মৃত ৭, নিন্দায় সরব গোটা বিশ্ব

525

ভিয়েনা: ফের উত্তপ্ত ইউরোপ। অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় সন্ত্রাসবাদী হানায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। সূত্রের খবর, মোট ৬ টি জায়গায় হামলা চালানো হয়। প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য অনুযায়ী, ১০০ রাউন্ডের বেশি গুলি চালিয়েছে আতঙ্কবাদীরা। তবে এই আক্রমণকারীদের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। সোমবার অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ হামলার তীব্র নিন্দা করে মোকাবিলায় নিজেদের জীবন বিপন্ন করার জন্য বিপর্যয় মোকাবিলা পরিষেবার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। তিনি বলেন, আমরা কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলছি।

জানা গিয়েছে, শহরের মধ্যভাগে গুলি চলেছিল। এর জেরে মানুষকে ওই চত্বরে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। বর্ডারে চেকিং চলছে, মঙ্গলবার বাচ্চাদের স্কুলে যাওয়ার দরকার নেই। দুই স্থানীয় ও একজন সন্ত্রাসবাদী এই হানায় প্রাণ হারিয়েছে। প্রশাসন জানিয়েছে যে স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিয়ে এসেছিল আক্রমণকারীরা ও তারা যে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত, সেটি বোঝা যাচ্ছিল।

- Advertisement -

অন্যদিকে, অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় জঙ্গি হামলার ঘটনার নিন্দায় সরব বিশ্ব। আত্মঘাতী জঙ্গি হামলার কঠোর নিন্দা করেছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রনেতারা। এক এক করে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসছে হামলায় নিহত ও আহতদের প্রতি সমবেদনার বার্তা।

সংযুক্ত রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব আন্তোনিও গুয়েতেরেস জঙ্গি হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন। রাষ্ট্রপুঞ্জের মুখপাত্র এক বিবৃতি জারি করে বলেছেন, ভিয়েনা হামলার ঘটনায় যথেষ্ট উদ্বিগ্ন মহাসচিব। তিনি গোটা বিষয়টির ওপর নজর রাখছেন। এই হামলার তীব্র নিন্দা করে করে অস্ট্রিয়া প্রশাসন ও সেদেশের মানুষের প্রতি সমবেদনা ও সহমর্মিতা পোষণ করেছেন।

ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাক্রঁ ট্যুইটারে লিখেছেন, অস্ট্রিয়াবাসীর এই শোক ও বিহ্বলতা আমরা বুঝতে পারছি। ফ্রান্সের পর আরেক বান্ধব রাষ্ট্রের ওপর হামলা হল। এটা আমাদের ইউরোপ। শত্রুদের জানা উচিত, ওরা কাদের চ্যালেঞ্জ করছে। আমরা ছাড়ব না।

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, ভিয়েনার এই ভয়াবহ হামলায় আমি শোকাহত। ট্যুইটারে তিনি লেখেন, অস্ট্রিয়াবাসীর পাশে রয়েছে ব্রিটেন। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আমরা ঐক্যবদ্ধ।

প্রসঙ্গত, সোমবার রাতে মুম্বইয়ের ধাঁচে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলা হয়। অত্যাধুনিক অস্ত্র নিয়ে ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে শহরের ৬ টি জায়গায় হামলা চালায় জঙ্গিরা। বেশ কয়েকজনকে তাঁরা পণবন্দি করে। জঙ্গিদের মোকাবিলা করতে গিয়ে নিহত এক পুলিশকর্মীও। গুলির লড়াই চলাকালীন এক জঙ্গিরও মৃত্যু হয়। তাঁর শরীরে বাঁধা ছিল বিস্ফোরক।