সেতু না হওয়ায় ভোট বয়কট গ্রামবাসীদের

63

হেমতাবাদ: বিচ্ছিন্ন গ্রামের কুলিক নদীর ওপর সেতু না হওয়ায় ভোট বয়কট করলেন শেরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের পাঁচ হাজার বাসিন্দা। আট থেকে আশি সকলেই ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে না গিয়ে কুলিক নদীর ধারে বসে প্রতিবাদে আন্দোলনে শামিল হন। বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে একজন ভোটারও যাননি। ভোটকর্মীরা যথারীতি এলেও ভোটদাতাদের উৎসাহ না থাকায় কার্যত সুনসান হয়েছে এলাকা। আন্দোলনকারীদের অভিযোগ, নির্বাচন এলেই ভোট প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতির বন্যা আসে। ভোট শেষ হলে সেই বন্যার জলে ভাসতে হবে তাই ভোট দিয়ে কি হবে। ভোটের প্রতি উৎসাহ হারিয়েই এদিন শেরপুর গ্রাম পঞ্চায়েত ভোট বয়কটের পথেই হাঁটলেন প্রায় পাঁচ হাজার বাসিন্দা। হেমতাবাদ বিধানসভা কেন্দ্রের ১২৯,১৩০,১৩০(এ) এখনও পর্যন্ত জেলা প্রশাসনের তরফে কেউ ঘটনাস্থলে আসেনি।

বাসিন্দাদের অভিযোগ, বারবার ভোট এলেই প্রার্থীরা এসে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে যায়। সেতু না থাকার জন্য শেরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বাজার ঘাট থেকে শুরু করে মুমুর্ষ রোগীর চিকিৎসার জন্য ছুটতে হয় কুলিক নদীর উপর দিয়ে। বাহন একমাত্র নৌগাওন নওগাঁ আবার নিজেদের চালিয়ে নদী পারাপার করতে হয়। বন্যার জলে ভেসে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বর্ষা এলেই ছেলেমেয়েরা স্কুলে যেতে পারে না। চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

- Advertisement -