কথা রাখেননি কেউ, ক্ষোভে বেহাল রাস্তা কেটে চাষ করে প্রতিবাদ গ্রামবাসীদের

184

চ্যাংরাবান্ধা: দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থায় এলাকায় প্রবেশের একমাত্র রাস্তা। একটু বৃষ্টি হলেই মাটির এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করা মুশকিল হয়ে দাঁড়ায়। গত কয়েকদিনে বেহাল রাস্তায় পড়ে গিয়ে একাধিক ব্যক্তি জখমও হয়েছেন বলে অভিযোগ। রাস্তা পাকা করার দাবির কথা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং ব্লক প্রশাসনকে একাধিকবার জানিয়েও কোনও লাভ হচ্ছে না। তাই এবার ক্ষোভে রাস্তা কেটে চাষ করে এর প্রতিবাদ জানিয়ে আন্দোলনে নামলেন বাসিন্দারা।

মেখলিগঞ্জ ব্লকের চ্যাংরাবান্ধা গ্রাম পঞ্চায়েতের ১৫৭ জামালদহ চিতিয়ারডাঙ্গা গ্রামের ঘটনা। চিতিয়ারডাঙ্গা কালীবাড়ি থেকে ভায়া রফিকুল রহমানের বাড়ি হয়ে সুটুঙ্গা নদী অবধি একটি রাস্তা রয়েছে। আরেকটি রাস্তা দেউতিখাতা প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে সুরেশ মণ্ডলের বাড়ি অবধি গিয়েছে। এই দুটি রাস্তারই বেহাল অবস্থা। এই রাস্তা দুটিই পাকা করার দাবি জানিয়ে আসছেন স্থানীয়রা।

- Advertisement -

যদিও বেহাল রাস্তার সমস্যার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যা স্বপ্না রায় বর্মনও। সোমবার তিনি বলেন, ‘বেহাল রাস্তা পাকা করার বিষয়ে ওই এলাকার মানুষ অনেকদিন থেকেই দাবি জানিয়ে আসছে। কিন্তু এখনও অবধি দাবি পূরণ না হওয়াতে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার ঘটেছে। এদিন ওই এলাকার জনগণের তরফে বেহাল রাস্তা কেটে চাষ করে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে বলেও শুনতে পেয়েছি। তবে সমস্যা সমাধানে আমার তরফে চেষ্টার কোনওরকম ত্রুটি রাখা হচ্ছে না।’