আক্রাম সমস্যায় ফেলতে পারত : কোহলি

মুম্বই : অতীতের কোন বোলার তাঁকে সমস্যায় ফেলতে পারতেন?

সোশ্যাল দুনিয়ায় এক ক্রিকেটপ্রেমীর আচমকা প্রশ্ন বিরাট কোহলিকে। একটুও সময় নষ্ট না করে ভারত অধিনায়কের জবাব, ওয়াসিম আক্রাম।

- Advertisement -

২০০৮ সালে আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়েছিল কোহলির। তার অনেক আগেই আক্রাম বিদায় জানিয়েছিলেন ক্রিকেটকে। ফলে বাইশ গজে তাঁদের সম্মুখসমরের ফল অজানা ক্রিকেট দুনিয়ার। কিন্তু কোহলি বিশ্বাস করেন, প্রাক্তন পাক অধিনায়ক আক্রাম তাঁকে সমস্যায় ফেলতে পারতেন।

টিম ইন্ডিয়ার সর্বাধিনায়ককে আরও একজন সমস্যায় ফেলেছিলেন। ইংল্যান্ডের জেমস অ্যান্ডারসনের বিষাক্ত সুইং ও পেস কোহলির ভুলে যাওয়ার কথা নয়। ২০১৪ সালের ইংল্যান্ড সফরে কোহলিকে কার্যত কাঁদিয়ে ছেড়েছিলেন অ্যান্ডারসন। টিম ইন্ডিয়ার আসন্ন ইংল্যান্ড সফরে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের চ্যালেঞ্জ জানানোর জন্য এবারও রয়েছেন জিমি। আগামী জুলাইয়ে ৩৯-এ পা দেবেন তিনি। কিন্তু তাতে কী? অ্যান্ডাসনের কাছে বয়স শুধুই একটি সংখ্যা। তিনি এখনও দুর্দান্ত রকমের ফিট। আসন্ন ইংলিশ সামারে জো রুটের দলের জন্য রয়েছে মোট ৭টি টেস্ট ম্যাচ। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে দুটি। আর ভারতের বিরুদ্ধে পাঁচটি। পাশাপাশি চলতি বছরের শেষে রয়েছে অ্যাসেজও।

সব ম্যাচেই ইংল্যান্ডের হয়ে বোলিং ওপেন করার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন জিমি। বিলেতের সংবাদমাধ্যমে তিনি তাঁর মনের কথা জানিয়েছেন আজ। শুধু তাই নয়, ইসিবি তাদের পেসারদের জন্য যে রোটেশন প্রথা চালু করেছে, তার প্রতি দারুণ সমর্থন নেই অ্যান্ডারসনের। ইংল্যান্ডের সর্বকালের অন্যতম সেরা পেসারের কথায়, আসন্ন সামারে আমি ইংল্যান্ডের হয়ে প্রতিটা টেস্ট ম্যাচ খেলতে চাই। ইসিবির রোটেশন প্রথার জন্য সেটা সম্ভব হবে কি না, জানি না। কিন্তু সাতটি টেস্টেই খেলার ইচ্ছা রয়েছে আমার। আপাতত অ্যান্ডারসনের নজরে ভারতের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ। তাঁর কথায়, ভারতের মতো শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টেস্টের দিকে তাকিয়ে রয়েছি। আমি নিশ্চিত, দারুণ একটা সিরিজ হবে। কোহলির বিরুদ্ধে ফের বল করার জন্য আমি তৈরি।

কোহলির টিম ইন্ডিয়ার মুখোমুখি হওয়ার আগে ইংল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে বেশি টেস্ট খেলার রেকর্ডও করতে চলেছেন তিনি। অ্যান্ডারসন ইতিমধ্যেই ১৬০টি টেস্ট খেলেছেন। আর একটি টেস্ট খেললেই তিনি অ্যালিস্টার কুকের ১৬১ টেস্ট ম্যাচের রেকর্ড স্পর্শ করবেন। জিমির কথায়, একজন পেসার হিসেবে ইংল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে বেশি টেস্ট খেলতে পারা গর্বের। বিরাটদের বিরুদ্ধে এই গর্ব নিয়ে বল হাতে রানআপের দৌড়টা শুরু করবেন তিনি।