লড়াইয়ে আগে বিরাটের মুখে মেসি-রোনাল্ডো!

নটিংহ্যাম : থ্রি লায়ন্সের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ।

ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট ডুয়েল নিয়ে উত্তেজনার পারদও ঊর্ধ্বমুখী। যদিও যে চ্যালেঞ্জে মুখোমুখি হওয়ার আগে বিরাট কোহলির মুখে কি না ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, লিওনেল মেসি! সিরিজ শুরুর আগে দীনেশ কার্তিককে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দুই মহাতারকাকে নিয়ে মাতলেন।

- Advertisement -

প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের লাঞ্চ ব্রেকে সাক্ষাৎকারটি সম্প্রচারিত হয়। ফুটবলপ্রেমী বিরাটকে যেখানে বলতে দেখা যায়, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর ভক্ত আমি। ফুটবলের প্রতি ওর প্যাশন, শৃঙ্খলা, শ্রেষ্ঠত্ব প্রতিপন্নের লড়াইকে আমি শ্রদ্ধা করি। দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে নিরলস পরিশ্রমে এই জায়গা ধরে রেখেছে। লিওনেল মেসি হয়তো অনেক বেশি সহজাত প্রতিভা। রোনাল্ডো সেখানে চূড়ান্ত পেশাদার, দৃঢ় মানসিকতার। ও মাঠে নামে স্পেশাল কিছুর হাতছানি।

ফুটবল ভালোবাসলেও প্রথম প্রেম ক্রিকেটই। গলি ক্রিকেট থেকে ভারতীয় দলের অধিনায়ক- বারবার যা প্রতিফলিত হয়েছে। বাবার মৃত্যুর পরও টিনএজার বিরাট ব্যাট হাতে ফিরোজ শাহ কোটলায় নেমেছিলেন রাজ্য দল ও ক্রিকেটের প্রতি দায়বদ্ধতার কারণে। বিরাটের কথায়, ম্যাচের মাঝখানে দলকে বেকায়দায় ফেলার পক্ষপাতী ছিলাম না। বাড়িতে তা বলি। ওরাও কিছুটা অবাক হয়েছিল। শেষপর্যন্ত চোয়াল শক্ত করে খেলেছিলাম। বাবাও ঠিক এটাই চাইত। আসলে ক্রিকেটের প্রতি সবসময় সৎ থেকেছি।

পরিশ্রম, লড়াই, একাগ্রতা শিখরে পৌঁছে দিলেও, পা মাটিতেই। এখনও সমস্যা হলে ছোটোবেলার কোচ রাজকুমার শর্মাকে ফোন করেন। যেমনটি করেছিলেন, নটিংহ্যাম টেস্ট শুরুর দু-দিন আগেও। বিরাটের কথায়, আট বছর থেকে স্যারের কাছে ক্রিকেট শেখা শুরু। এখনও প্রয়োজন পড়লেই ছুটে যাই, পরামর্শ নিই।