সোনার বাংলা গড়তে বিজেপিকে ভোট দিন: মোদি

73

তিলাবেদিয়া (বাঁকুড়া): ভোটের আগে শেষ রবিবাসরীয় দুপুরে প্রচারে ঝড় তুললেন মোদি-মমতা। এদিন পূর্ব মেদিনীপুর জেলার দক্ষিণ কাঁথি, উত্তর কাঁথি ও নন্দকুমারে জনসভা করেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিন জায়গাতেই মমতার নিশানায় ছিল বিজেপি ও কেন্দ্রীয় সরকার। তৃণমূল সুপ্রিমোর জনসভার পরপরই এদিন বাঁকুড়ার তিলাবেদিয়া ময়দানে জনসভা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভোটের আর মাত্র হাতে গোনা কয়েকটি দিন বাকি। সেদিকে তাকিয়েই যে এই প্রচার তা বলাইবাহুল্য।

২৭ মার্চ প্রথম দফার ভোট গ্রহণ শুরু। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব মেদিনীপুরের ৩০টি আসনে ভোট হবে। তার আগে প্রচারে ঝড় তুলেছেন তৃণমূল-বিজেপি নেতৃত্ব। বিশেষত দুই মেদিনীপুর জেলায় প্রচারে জোর দিয়েছেন মোদি-মমতা। এছাড়া এদিনই পূর্ব মেদিনীপুরের এগরায় জনসভা করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শা। সেই জনসভায় বিজেপিতে যোগ দেন শিশির অধিকারী। প্রতিটি জনসভা থেকেই একে অপরের কড়া সমালোচনা করেন তৃণমূল-বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব। তোপ-পালটা তোপ ঘিরে রীতিমতো সরগরম ভোটের আগের শেষ রবিবসরীয় দুপুর।

- Advertisement -

এদিন বাঁকুড়ার তিলাবেদিয়া ময়দানে সভাস্থল পরিক্রমার পর মঞ্চে ওঠেন মোদি। তাঁকে বাঁকুড়া জেলার বিজেপি প্রার্থীদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়। তারপরই ভাষণ শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী।

মোদি এদিন বলেন, ’সোনার বাংলা গড়তে ও দুর্নীতিমুক্ত সরকার গড়তে বিজেপিকে ভোট দিন। বাংলায় ডাবল ইঞ্জিন সরকার হবে। আমরা ক্ষমতায় এলে বাঁকুড়ার পর্যটনে জোর দেওয়া হবে। টেরাকোটা শিল্পে নজর দেওয়া হবে।‘

তৃণমূল শাসিত রাজ্য সরকার বিভিন্ন কেন্দ্রীয় প্রকল্প এরাজ্যে চালু করছে না প্রায়ই অভিযোগ করেন বিজেপি নেতারা। সেই প্রসঙ্গে তৃণমূলের উদ্দেশ্যে মোদির কটাক্ষ, যে প্রকল্পে দুর্নীতি করা যায় না, সেসব প্রকল্প তৃণমূল সরকার চালু করে না।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তোষণের রাজনীতি করেন বলে এদিন তোপ দাগেন মোদি। তিনি এদিন বলেন, ‘বাংলায় দুর্নীতিবাজদের খেলা আর চলবে না।‘ মমতাকে কটাক্ষ করে মোদি বলেন, ‘কিছুতেই আপনাকে বাংলার মানুষের স্বপ্নকে লাথি মারতে দেব না। বাংলার বিকাশকে লাথি মারতে দেব না।‘