ভোট নিতে বুথে বুথে রওনা ভোটকর্মীদের

164

কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ার: রাত পেরোলেই উত্তরবঙ্গের দুই জেলায় বিধানসভা ভোট। শনিবার সকাল থেকে কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে শুরু হয়ে যাবে ভোটগ্রহণ পর্ব। তার আগে শুক্রবার এই দুই জেলার ডিসিআরসি থেকে ভোটকর্মীদের ভোটের সামগ্রী তুলে দেওয়া হচ্ছে। সেখান থেকে সরাসরি ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে পৌঁছে যাচ্ছেন তাঁরা।

কোচবিহার পলিটেকনিকের ডিসিআরসি থেকে ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের উদ্দেশ্যে রওনা দেন ভোটকর্মীরা। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলায় মোট পোলিং স্টেশন রয়েছে ২,৪৯৭টি। মোট বুথের সংখ্যা ৩,২২৯টি। মোট ৭০ জন প্রার্থী জেলার ন’টি কেন্দ্র থেকে লড়ছেন। মোট ভোটার রয়েছেন ২৩ লক্ষ ৪১ হাজার ১৪৮ জন। ১৭ হাজারের বেশি ভোটকর্মী মিলে ভোট পরিচালনা করবেন। সেই কর্মীদেরই এদিন ইভিএম, ভিভি প্যাট সহ ভোট সংক্রান্ত নানা সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। সেগুলো নিয়ে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার পর সেখানেই রাতে থাকবেন তাঁরা।

- Advertisement -

পাশাপাশি, আলিপুরদুয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিসিআরসি করা হয়েছে। সেখান থেকেও একে একে ভোটকর্মী ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে যাচ্ছেন। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলায় মোট পোলিং স্টেশন রয়েছে ১,৭০৬টি। মোট ৪২ জন প্রার্থী জেলার পাঁচটি কেন্দ্র থেকে লড়ছেন। মোট ভোটার রয়েছেন ১২ লক্ষ ৪৪ হাজার ৩৫১ জন।

এদিকে, এদিন সকাল থেকেই মাদারিহাটের বিভিন্ন পোলিং স্টেশনে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান ও নিরাপত্তা কর্মীরা পৌঁছে যেতে শুরু করেছেন। বিকেলের দিকে পোলিং স্টেশনগুলিতে ঢুকতে থাকেন পোলিং টিমের সদস্যরা। এদিকে পোলিং স্টেশনের ধারেকাছে কোনও নির্বাচনি প্রচারের চিহ্ন রয়েছে কি না, সেগুলি খতিয়ে দেখতে সকাল থেকেই বের হন নির্বাচন কমিশন কর্তৃক দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মীরা।

প্রসঙ্গত, কোনও পোলিং স্টেশনের দু’শো মিটারের মধ্যে নির্বাচনি প্রচারের চিহ্ন রাখার নিয়ম নেই। সেই বিধি মেনে কর্মীরা এদিন পতাকা খুলে ফেলা, পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা, দেওয়াল লিখন মুছে ফেলার কাজ করেন। আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট বিধানসভা কেন্দ্রে এবার প্রায় ২ লক্ষ ১২ হাজার ভোটার রয়েছেন। ২৯৮টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ করা হবে। সকাল সকাল কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের দেখে তাঁরা বুকে বল পেয়েছেন বলে জানান ভোটারদের অনেকেই। তাঁদের বক্তব্য, বিনা বাধায় ভোট দিতে চান তাঁরা। বিশেষ করে ২০১৮ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে তাদের তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অনেকেই।