সুকমল ঘোষ, ফালাকাটা : লোকসভা ভোটের আগে পিএইচইর তিনটি পানীয় জলপ্রকল্পের শিলান্যাস হয়েছিল ফালাকাটায়। ফালাকাটা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুরেশ লালা ওই প্রকল্পের শিলান্যাস করেছিলেন। জেলার জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের কর্তারাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন। কথা ছিল দিন কয়েকের মধ্যেই ওই পানীয় জলপ্রকল্পের কাজ শুরু হবে। কাজ শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা ছিল এক বছর। কিন্তু শিলান্যাসের পর পাঁচ মাস কেটে গেলেও এখনও কাজ শুরু হয়নি। স্বভাবতই এনিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে এলাকায়।

পিএইচই সূত্রে জানা গিয়েছে, সুভাষ কলোনি, কলেজপাড়া ও চুয়াখোলা মিলে ওই তিনটি জলপ্রকল্পের জন্য মোট বরাদ্দ হয়েছে ১৭ কোটি ৩৪ লক্ষ টাকা। ওই টাকায় তিনটি রিজার্ভার, পাম্প হাউস, পাইপলাইন ও জলের স্ট্যান্ডপোস্ট তৈরি হবে। সবচেয়ে বড়ো রিজার্ভার হবে ফালাকাটার সুভাষ কলোনিতে। সেটির জলধারণ ক্ষমতা ৯ লক্ষ লিটার। বাকি দুটি সাড়ে পাঁচ লক্ষ লিটার করে।

- Advertisement -

বর্তমানে ফালাকাটার বাবুপাড়ায় পিএইচইর পুরোনো জলপ্রকল্পে সাড়ে তিন লক্ষ লিটারের একটিমাত্র রিজার্ভার রয়েছে। ফালাকাটায জনসংখ্যা অনেক বেড়েছে। পাইপলাইনও অনেক পুরোনো হওয়ায় মাঝে মাঝেই বিভিন্ন জায়গায় পাইপ ফুটো হয়ে গিয়েছে। সরু সুতোর মতো জল পড়ছে বিভিন্ন এলাকায়। এখনও বহু এলাকায় জলের পাইপলাইন ও স্ট্যান্ডপোস্ট নেই। ফলে বহু মানুষ পানীয় জল পরিসেবা পাচ্ছেন না।

পিএইচইর আধিকারিকরা জানিয়েছেন, তিনটি নয়া প্রকল্পের কাজ শেষ হলে ফালাকাটার পানীয় জল পরিসেবার চিত্রটি আমূল বদলে যাবে। শুধু তাই নয়, ফালাকাটায় ওই পানীয় জলপ্রকল্পে বাড়ি বাড়ি জল সরবরাহের সুবিধাও পাওয়া যাবে। স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ কিংবা আগামীদিনে পুরসভা চাইলে নাগরিকদের বাড়ি বাড়ি জল সরবরাহ করতে পারবে। টেন্ডার ও ওয়ার্ক অর্ডার হওয়ার পর গত মার্চ মাসে ভোটের আগে তড়িঘড়ি ওই তিনটি জলপ্রকল্পের শিলান্যাস হয়।

ফালাকাটা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুরেশ লালা বলেন, নির্বাচনের জন্য ওই প্রকল্পের জমির কাগজ তৈরির প্রক্রিয়া ও জমি হস্তান্তরের কাজ পিছিয়ে যায়। আশা করছি, আগামী এক মাসের মধ্যেই ওই পানীয় জলপ্রকল্পের কাজ শুরু করা সম্ভব হবে। পিএইচইর আলিপুরদুযারের অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার তরুব্রত রায় বলেন, খুব দ্রুত ফালাকাটায় পানীয় জলপ্রকল্পের কাজ শুরু করা হবে। আশা করছি চলতি মাসের শেষেই কাজ শুরু হয়ে যাবে। তবে শিলান্যাসের ৫ মাস পেরিয়ে গেলেও কেন প্রকল্পের কাজ শুরু করা গেল না, তা নিয়ে তিনি কোনো মন্তব্য করতে চাননি।