মাধ্যমিক ২০২১: একনজরে নতুন সিলেবাস, কী কী থাকছে জেনে নিন..

28446

অনলাইন ডেস্ক: বুধবারই শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন পড়ুয়াদের বোঝা কমাতে ২০২১ সালের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সিলেবাস ৩০ শতাংশ থেকে ৩৫ শতাংশ হ্রাস করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা দপ্তর। এও জানানো হয়েছিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ ও উচ্চমাধ্যমিক কাউন্সিল তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে নয়া সিলেবাস প্রকাশ করবে। দেরি না করে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ মাধ্যমিকের নতুন সিলেবাস ঘোষণা করে দিল। বেশিরভাগ বিষয়ের ক্ষেত্রে ৩০ থেকে ৩৫ শতাংশের বেশি কাটছাঁট করা হয়েছে। কেবলমাত্র ভূগোলের ক্ষেত্রে ৬টি অধ্যায়ের মধ্যে মাত্র ২টি অধ্যায় পরীক্ষার সিলেবাসে রাখা হয়েছে। অর্থাৎ, বাদ দেওয়া হয়েছে প্রায় ৬৬ শতাংশ পাঠক্রম।

২০২১ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষায় কোন কোন বিষয়ের কী কী অংশ থাকছে, দেখে নিন একনজরে-

- Advertisement -
  • বাংলা: ‘জ্ঞানচক্ষু’, ‘বহুরূপী’ এবং ‘পথের দাবি’- এই তিনটি গল্প থাকছে। কবিতা থাকছে ৫টি- ‘আয় আরও বেঁধে বেঁধে থাকি’, ‘আফ্রিকা’, ‘অসুখী একজন’, ‘অভিষেক’ এবং ‘প্রলয়োল্লাস’। ‘হারিয়ে যাওয়া কালি কলম’ প্রবন্ধ ও ‘সিরাজউদ্দৌলা’ নাটক থাকছে। পূর্ণাঙ্গ সহায়ক গ্রন্থ থেকে ‘কোনি’ থাকছে। ব্যাকরণে থাকছে ‘কারক ও অকারক সম্পর্ক’ এবং ‘সমাস’। এছাড়া কাল্পনিক সংলাপ, প্রতিবেদন রচনা, অনুবাদ (ইংরেজি থেকে বাংলা) সিলেবাসে রয়েছে।
  • ইংরেজি: ৫টি লেসন থাকছে। সেগুলি হল- ‘Father’s Help’, ‘Fable’, ‘The Passing Away of Bapu’, ‘My Own True Family’, ‘Our Runaway Kite’। পাশাপাশি গ্রামার এবং রাইটিং স্কিল থাকবে।
  • অঙ্ক: নিম্নলিথিত বিষয়গুলি থাকছে- একচলবিশিষ্ট দ্বিঘাত সমীকরণ, সরল সুদকষা, বৃত্ত সম্পর্কিত উপপাদ্য, আয়তঘন, অনুপাত ও সমানুপাত, চক্রবৃদ্ধি সুদ (তিন বছর পর্যন্ত) ও সমাহার বৃদ্ধি বা হ্রাস, বৃত্তস্থ কোণ সম্পর্কিত উপপাদ্য, লম্ব বৃত্তাকার চোঙ, দ্বিঘাত করণী, সম্পাদ্যের মধ্যে থাকছে ত্রিভুজের পরিবৃত্ত এবং অন্তর্বৃত্ত অঙ্কন, গোলক, ভেদ, অংশীদারি কারবার, বৃত্তের স্পর্শক সংক্রান্ত উপপাদ্য, লম্ব বৃত্তাকার শঙ্কু, বৃত্তের স্পর্শক অঙ্কন (সম্পাদ্য), সাদৃশ্য।
  • ভৌতবিজ্ঞান: সাধারণ অংশের পরিবেশের জন্য ভাবনা, গ্যাসের আচরণ, রাসায়নিক গণনা। পদার্থবিদ্যার আলো এবং চলতড়িৎ। রসায়ন থেকে থাকছে- পর্যায় সারণি ও মৌলদের ধর্মের পর্যায়বৃত্ততা, আয়নীয় ও সমযোজী বন্ধন, তড়িৎ প্রবাহ ও রাসায়নিক বিক্রিয়া।
  • জীবনবিজ্ঞান: জীবজগতে নিয়ন্ত্রণ ও সমন্বয়, জীবনের প্রবহমানতা, বংশগতি এবং কয়েকটি সাধারণ জিনগত রোগ।
  • ইতিহাস: ইতিহাসের ধারণা, সংস্কার: বৈশিষ্ট্য ও মূল্যায়ন, প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ, সংঘবন্ধার গোড়ার কথা, বিকল্প চিন্তা ও উদ্যোগ (উনিশ শতকের মধ্যভাগ থেকে বিশ শতকের প্রথম ভাগ পর্যন্ত): বৈশিষ্ট্য ও পর্যালোচনা।
  • ভূগোল: বহির্জাত প্রক্রিয়া ও তাদের দ্বারা সৃষ্ট ভূমিরূপ, ভারত (ভূমিকা, ভারতের প্রাকৃতিক পরিবেশ, ভারতের অর্থনৈতিক পরিবেশ, মানচিত্র)।