বিলেতে কোহলিদের প্রস্তুতি নিয়ে দুশ্চিন্তা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : করোনার আতঙ্কের পাশে প্রস্তুতি নিয়ে দুশ্চিন্তা!

করোনা নিয়ে উদ্বেগের মধ্যেই বিরাট কোহলির ভারত বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপ ফাইনালের প্রস্তুতি নিয়ে মহা দুশ্চিন্তায় পড়েছে। ২ জুন ইংল্যান্ড রওনা হচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। বিলেতে পৌঁছানোর পর ১০ দিনের কোয়ারান্টিন পর্ব রয়েছে। তারপর ১৮ জুন থেকে সাউদাম্পটনের এজেস বোল স্টেডিয়ামে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপ ফাইনাল। কোহলিদের প্রস্তুতির জন্য থাকছে হাতে গোনা মাত্র কয়েকটি দিন। অনুশীলন ম্যাচ খেলে বিলেতের পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার সুযোগও নেই। অস্ট্রেলিয়া সফরের প্রস্তুতি লকডাউনের মধ্যেই শুরু করেছিল ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। স্যর ডনের দেশে পৌঁছানোর পর পর্যাপ্ত অনুশীলনের সুযোগও ছিল। কিন্তু সাউদাম্পটনে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপ ফাইনালের আগে সেটা পাচ্ছেন না কোহলিরা।

- Advertisement -

অথচ বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপ ফাইনালে কোহলি-রোহিতদের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ডের জন্য ছবিটা সম্পূর্ণ আলাদা। ভারতের আগেই বিলেতে পৌঁছে যাচ্ছেন কিউয়িরা। সেখানে কোয়ারান্টিন পর্ব শেষ করে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে জোড়া টেস্ট খেলবেন কেন উইলিয়ামসনরা। ফলে প্রস্তুতি ও ম্যাচ প্র‌্যাকটিশের দিক থেকে কোহলিদের তুলনায় কয়েক গুণ এগিয়ে থাকবে নিউজিল্যান্ড। প্রতিপক্ষের তুলনায় প্রস্তুতির ঘাটতির কথা আজ স্বীকার করে নিয়েছেন দলের বোলিং কোচ ভরত অরুণ ও ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধর। তাঁদের মতে, প্রস্তুতির ঘাটতি ঢাকতে কোহলিদের ভরসা অতীতে ইংল্যান্ডে খেলার অভিজ্ঞতা। কিন্তু সেই অভিজ্ঞতা দিয়ে প্রস্তুতির ঘাটতি আদৌ ঢাকা সম্ভব কি না, স্পষ্ট নয়।

ভারতে আট ও বিলেতে দশ, মোট ১৮ দিনের কোয়ারান্টিনের পর কোহলিদের জন্য বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপ ফাইনালের প্রস্তুতির সময় প্রায় থাকছেই না। সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আজ প্রস্তুতির ঘাটতির কথা তুলে ধরে রোহিতদের ফিল্ডিং কোচ শ্রীধর বলেন, কোয়ারান্টিনের মধ্যে অনুশীলনের সুযোগ আদৌ থাকবে কি না, নিশ্চিত নই। ফলে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপ ফাইনালের আগে প্রস্তুতির ঘাটতি থেকেই যাচ্ছে। তবে দলে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের অভাব নেই। তা দিয়ে প্রস্তুতির অভাব ঢাকতে হবে কোহলিদের।