কলকাতা, ১৮ অগাস্টঃ এবার প্রায় গোটা বর্ষায় বৃষ্টির জন্য হাপিত্যেশ করেছিলেন গাঙ্গেয় দক্ষিণবঙ্গের বাসিন্দারা। কিন্তু একেবারে শেষদিকে এসে বর্ষার স্লগ ওভারে ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে দিশেহারা কলকাতা সহ দক্ষিণের জেলাগুলি। গত একদিনে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে কলকাতায়৷ পরিমাণ প্রায়  ১৭৬ সেন্টিমিটার। স্বাভাবিকের তুলনায় প্রায় ১৬০০ শতাংশ বেশি। গোটা দক্ষিণবঙ্গের গড় হিসাব ধরলে ৪২ সেন্টিমিটার। স্বাভাবিকের থেকে ৪৭০ শতাংশ বেশি। এতদিন দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির ঘাটতি ছিল ৫০ শতাংশ। টানা এই বৃষ্টিপাতের জেরে সেই ঘাটতি কমে দাঁড়িয়েছে ২৩ শতাংশে। রবিবারেরও ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। বৃষ্টি হবে পশ্চিমের জেলাগুলিতেও। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, দক্ষিণবঙ্গ ও সংলগ্ন বাংলাদেশের ওপর একটি ঘূর্ণাবর্ত ও সক্রিয় মৌসুমী অক্ষরেখার জন্য শুক্রবার থেকে বৃষ্টি শুরু হয়েছিল। এর সঙ্গে একটি নিম্নচাপ তৈরি হওয়ায় বৃষ্টির পরিমাণ আরও বাড়বে। তবে দক্ষিণে বৃষ্টি হলেও উত্তরবঙ্গের জন্য তেমন কোনো আশঙ্কার খবর শোনায়নি হাওয়া অফিস। উত্তরের জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। অন্যদিকে, দুর্যোগ ঠেকাতে ইতিমধ্যে হেল্পলাইন নম্বর (০৩৩)২২৫৩-৫১৮৫ চালু করেছে নবান্ন। মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। উপকূলবর্তী এলাকায় জারি হয়েছে সতর্কতা৷ দিঘা, মন্দারমণি, তাজপুরের মতো এলাকা থেকে পর্যটকদের ফিরে আসতে বলা হয়েছে৷