পূর্ব বর্ধমানে নির্বিঘ্নে ভোট সম্পন্ন করতে তৎপর কমিশন

123
ফাইল চিত্র

বর্ধমান: পঞ্চম দফায় শনিবার পূর্ব বর্ধমান জেলায় হবে প্রথম পর্বের ভোট। এদিন জেলার ৮টি বিধানসভা আসনে (বর্ধমান উত্তর, বর্ধমান দক্ষিণ, মেমারি, রায়না, জামালপুর, খণ্ডঘোষ, মন্তেশ্বর ও কালনা) ভোটগ্রহণ চলবে। ভোট পক্রিয়া নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করতে তৎপর রয়েছে নির্বাচন কমিশন। পঞ্চম দফার ভোটপর্ব নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করাটাই কমিশনের কাছে চ্যালেঞ্জের। ভোটের সময়ে পূর্ব বর্ধমানের কোথাও যাতে অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য জেলা পুলিশও সতর্ক রয়েছে।

রাজ্যের মধ্যে পূর্ব বর্ধমান জেলাকে একসময় বলা হত বামেদের দুর্গ। কিন্তু ২০১১ সালে রাজ্য রাজনীতিতে পালা বদলের পর সেই দুর্গ ভেঙে যায়। এরপর থেকে জেলার গ্রাম গ্রামান্তর, শহর সব জায়গা থেকে কাস্তে হাতুড়ি তারা কার্যত বিলীন হয়ে যায়। সেই জায়গার দখল নেয় ঘাসফুল। এরপর থেকে প্রায় ৮ বছর এই জেলায় কোনও বিরোধী দল তাদের অস্তিত্ব সেইভাবে জানান দিতে পারেনি। কিন্তু পরিস্থিতির বদল ঘটে ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে।

- Advertisement -

গত লোকসভা নির্বাচনে বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা আসনে পদ্ম ফোঁটে। তবে বর্ধমান পূর্ব লোকসভা আসনে ঘাসফুলের আধিপত্য বজায় থাকলেও তা বেশি দিন টেকেনি। বর্ধমান পূর্ব লোকসভা আসনে তৃণমূলের প্রতীকে লড়ে জয়ী হওয়া সাংসদ সুনীল মণ্ডল ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে বিজেপিতে যোগ দিয়েদেন। তারপর থেকেই ঘাসফুলের দুর্গে থাবা বসায় পদ্ম শিবির।

পূর্ব বর্ধমানে নির্বিঘ্নে ভোট সম্পন্ন করতে তৎপর কমিশন| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

পঞ্চম দফায় পূর্ব বর্ধমান জেলায় যে ৮টি বিধানসভা আসনে নির্বাচন হচ্ছে তার মধ্যে ৭টি আসনেই গতবার জিতেছিল তৃণমূল। শুধুমাত্র জামালপুর বিধানসভা আসনটি তৃণমূলের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিতে পারে বামেরা। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে দুর্গ দখলে রাখাটাই তৃণমূলের কাছে বড় চ্যালেঞ্জের। জেলার ৪০ লক্ষাধিক ভোটার ঠিক করবেন পূর্ব বর্ধমান ঘাসফুলের দুর্গ হয়েই থাকবে, না এই জেলা পদ্ম শিবিরের দখলে যাবে। যার উত্তর মিলবে ২ মে।

২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে অবিভক্ত বর্ধমান জেলায় ভোটার সংখ্যা ছিল ৫৬,৭২,৭৩০ জন। তারমধ্যে পুরুষ ভোটার ছিল ২৯,৫৮,৭৪৮ জন এবং মহিলা ভোটার ছিল ২৭,৩৮,১৪১ জন। সেবার বর্ধমান জেলায় ২৫টি বিধানসভা আসনের মধ্যে তৃণমূল প্রার্থীরা ১৯টি আসনে জয়ী হন। আর বামেরা ৫টি আসনে ও কংগ্রেস একটি আসনে জয়ী হয়। বিজেপি সেবার খাতা খুলতে পারেনি। ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল বর্ধমান জেলা ভাগ হয়। তারপর এবার ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে পূর্ব বর্ধমান জেলার ১৬টি বিধানসভা আসন মিলিয়ে ভোটার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪০,৩৫,৪২৪জন। তার মধ্যে পুরুষ ভোটার ২০,৪৭,৯২৪ জন আর মহিলা ভোটার ১৯,৮৭,৪১৫ জন।

আগামীকাল জেলার ৮টি বিধানসভার ২,৮১০টি বুথে ভোট হবে। জেলায় মোট স্পর্শকাতর বুথ ৯৩৯ টি। ভোট পক্রিয়া নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করতে থাকছে ১৬৭ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী ও ৫,২০০ জন পুলিশকর্মী। এছাড়াও ‘কুইক রেসপন্স টিমে’ (কিউআরটি) ১৫০ জনকে রাখা হয়েছে। প্রতিটি পঞ্চায়েত এলাকায় ২ টি করে এবং শহরাঞ্চলে ২টি ওয়ার্ড পিছু একটি করে ‘কুইক রেসপন্স টিম’ তৈরি করা হয়েছে। প্রতিটি কুইক রেসপন্স টিমে থাকবে এক সেকশন করে আধা সামরিক বাহিনী। কমিশন সূত্রে খবর প্রতিটি বিধানসভা এলাকাকে ছোট ছোট এলাকায় ভাগ করা হয়েছে, যার মাথায় থাকবেন ‘ডিএসপি’ পদমর্যাদার আধিকারিক। কমিশন পঞ্চম দফার ভোট কতটা অবাধ ও শান্তিপূর্ণভাবে করাতে পারল তা আগামীকাল ভোট শুরুর পরই পরিষ্কার হয়ে যাবে বলে মত ভোটারদের।