সেলফ স্ক্যান অ্যাপ বানিয়ে দেশকে পথ দেখাচ্ছে বাংলা  

316
ফাইল ছবি।

কলকাতা: দেশের সার্বভৌমত্ব, অখন্ডতা, নিরাপত্তা ও সাধারণ মানুষের সুরক্ষার স্বার্থে সম্প্রতি ৫৯টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এবার চিনা অ্যাপ বর্জন করে আত্মনির্ভরতার পথ দেখালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের উদ্যোগে তৈরি হয়েছে স্ক্যান অ্যাপ। মোবাইলে নথিপত্র স্ক্যান করা যাবে ওই অ্যাপে।

মুখ্যমন্ত্রী সোমবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, ‘আমার মনে হয়, বাংলাই প্রথম এমন একটি বিশ্বমানের নিজস্ব অ্যাপ তৈরি করল। কখনও কখনও গৌরবের সঙ্গে কৃতিত্ব দাবি করতে হয়। এটা তেমনই একটা সময়।‘ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কিছুদিন আগে আত্মনির্ভর ভারতের ডাক দিয়েছিলেন। ‘ভোকাল ফর লোকাল‘ হতে আহ্বান জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। চিনের ৫৯টি অ্যাপ বাতিল করলেও কেন্দ্রীয় সরকার কিন্তু কোনও অ্যাপ তৈরির পথে হাঁটেনি। হাঁটলেন মমতা। জানিয়ে দিলেন, ‘এই অ্যাপ সুরক্ষার সঙ্গে কোনও আপস করবে না।‘

- Advertisement -

রাজ্য সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরের তৈরি এই অ্যাপে তথ্য পুরোপুরি ব্যক্তিগত থাকবে। কোথাও কোনও সার্ভারে জমা হবে না বলে আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি অ্যাপটির নাম দিয়েছেন ‘সেলফ স্ক্যান’। মমতা বলেন, ‘বিশ্বের যে কোনও প্রান্তের মানুষ এটা ব্যবহার করতে পারবেন। এতে স্ক্যান করা তথ্য এডিটও করা যাবে। বিনা খরচে মোবাইলে ইনস্টল করা যাবে অ্যাপটি। এতে কোনও বিজ্ঞাপন থাকবে না।‘

মমতা বলেন, ‘এই অ্যাপ অনেক সুরক্ষিত।‘ কোন অ্যাপ স্ক্যান করার জন্য ব্যবহার করা যাবে, তা নিয়ে যখন বিতর্ক চলছে, তখন বাংলা দেখিয়ে দিল স্বদেশিয়ানা কাকে বলে। রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরের প্রধান সচিবের দায়িত্বে আছেন আইপিএস অফিসার রাজীব কুমার।

তিনি পুলিশ কমিশনার থাকাকালীন নানা বিতর্কে জড়ান। কিন্তু তাঁর সাইবার বিষয়ক দক্ষতা প্রশ্নাতীত। সেটাকে কাজে লাগানোর জন্যই তাঁকে তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরের দায়িত্ব দিয়েছিলেন মমতা। তিনি এদিন বলেন, ‘রাজীব খুব ভালো কাজ করেছে। ওঁর টিম দেখিয়ে দিল, হোয়াট বেঙ্গল থিঙ্কস টু ডে, ওয়ার্ল্ড থিঙ্কস টুমরো। আমি আইটি দপ্তরকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। এই অ্যাপটি আপনার ঘরের মতো। কেউ নাক গলাতে পারবেন না।‘