ছাড়পত্র দিল নবান্ন, বাংলায় লোকাল ট্রেন চালুর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ৫ নভেম্বর

29286

কলকাতা: করোনা স্বাস্থ্যবিধি বাংলায় লোকাল ট্রেন চালুর ছাড়পত্র দিল রাজ্য সরকার। তবে, বাংলায় কবে লোকাল ট্রেনের চাকা গড়াবে, কী কী নিয়ম মেনে চলতে হবে ইত্যাদি বিষয়ে আগামী ৫ নভেম্বর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে। সোমবার নবান্নে পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্ব রেলের কর্তাদের সঙ্গে রাজ্য সরকারের বৈঠক শেষে এমনটাই জানানো হয়েছে।

লকডাউনের শুরু থেকে বাংলার মতো দেশের সব রাজ্যে লোকাল ট্রেন বন্ধ রাখা হয়। যদিও আনলক ৫ পর্বে কয়েকটি রাজ্য সরকার লোকাল ট্রেন চালাতে রেল মন্ত্রককে চিঠি দেয়। সেই মতো নিয়ম-বিধি মেনে সেই সব রাজ্যে লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু করে। কিন্তু, পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজি না থাকায় পুজোর আগের পর্যন্ত রেল রাজি থাকলেও বাংলায় লোকাল ট্রেনের চাকা গড়ায়নি। শুধু রেলকর্মীদের জন্য স্পেশাল ট্রেন চলাচল করে। আর সেই ট্রেনে সাধারণ যাত্রীদের ওঠা নিয়ে ইতিমধ্যে রাজ্যের বেশ কয়েকটি স্টেশন রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়। পরিস্থিতি মোকাবিলায় বাধ্য হয়ে রাজ্য সরকার লোকাল রেল মন্ত্রক চিঠি দেয়, যাতে রাজ্যে দ্রুত লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু করা যায়। সেই চিঠি বা আবএদনের পরিপেক্ষিতে এদিন নবান্নে রেলকর্তাদের সঙ্গে রাজ্য সরকারের বৈঠক হয়। সূত্রের খবর, এদিনের বৈঠকে এসে রেলকর্তারা মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন। এরপর তাঁদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন রাজ্যের মুখ্য সচিব। দুপক্ষের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা চলে। তারপরই বাংলায় ট্রেন চালানোয় ছাড়পত্র দেয় নবান্ন।

- Advertisement -

এদিনের বৈঠক শেষে জানানো হয়েছে, সাধারণভাবে হাওড়া-শিয়ালদহ ডিভিশনে যে সংখ্যক ট্রেন চলে নিউ নর্মালে স্বাভাবিকভাবেই সেই সংখ্যক ট্রেন চলবে না। আপাতত প্রতিদিন ১০-১৫ শতাংশ ট্রেন চলাচল করবে। কয়েকদিনের মধ্যে তা ২৫ শতাংশে নিয়ে যাওয়া হবে। তবে ট্রেনে মানতে হবে কোভিড বিধি। মাস্ক পরা, স্যানিটাইজার ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হবে। কমবে ট্রেনের যাত্রী সংখ্যাও। প্রতিটি ট্রেনে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে চলাচল করতে পারে বলে জানানো হয়েছে। অর্থাৎ রেলের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, প্রতিটি লোকাল ট্রেনে ৬০০ জন যাত্রী উঠতে পারবেন। তবে, টিকিট কাটার পদ্ধতি বদলাবে কি না, কিংবা সকলে ট্রেনে ওঠার সুযাগ পাবেন কি না অথবা হকাররা ট্রেনে উঠতে পারবেন কি না সে সম্পর্কে এদিন স্পষ্টভাবে কিছুই জানানো হয়নি। সে সমস্ত বিষয়ে আগামী ৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে।