লোকালয়ে বন্যপ্রাণীর হানা পড়লে কী করণীয়? পাঠ নিলেন গ্রামবাসীরা

126

চালসা: মানুষ-বন্যপ্রাণ সংঘাত রুখতে সচেতনতা শিবির। শুক্রবার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা স্পোরের উদ্যোগে মেটেলি ব্লকের বড়দীঘি চা বাগানের ধোবী লাইনে ওই শিবিরের আয়োজন করা হয়।
লাটাগুড়ি বনাঞ্চল সংলগ্ন এই চা বাগানে প্রায়শই হাতি, বাইসন, চিতাবাঘ ঢুকে পড়ে। ইতিমধ্যে বন্যপ্রাণীর হানায় বাগানের বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন অনেকেই। হাতির হানায় বাগানের বহু ঘর বাড়িও ভাঙে। বাগানে হাতি, বাইসন, চিতাবাঘ ঢুকলে কী করে তার মোকাবিলা করতে হবে, কীভাবে বাগানে চলাফেরা করতে হবে ইত্যাদি বিষয়ে এদিন জনগণকে সচেতন করা হয়।
বন্যপ্রাণীর হানায় কেউ আহত বা নিহত হলে কী ভাবে সরকারি সুযোগ সুবিধা পাওয়া যাবে সে বিষিয়েও এদিন শিবিরে আলোচনা করা হয়। স্পোরের তরফে শ্যামাপ্রসাদ পান্ডে বলেন, ‘বাগানে মানুষ-বন্যপ্রাণী সংঘাত রুখতে কুইক রেস্পন্স টিম তৈরি করা হয়েছে। কোনও বন্যপ্রাণী ঢুকলে ওই টিম কাজ করবে। এদিন বাগানের জনগণকে যাবতীয় বিষয়ে সচেতন করা হয়।