৭৭ থেকে ৭০, কোন পথে এগোচ্ছে বাংলার বিজেপি?

141
প্রতীকী

উত্তরবঙ্গ সংবাদ নিউজ ডেস্ক: একপ্রকার আদাজল খেয়ে একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে ময়দানে নেমেছিল গেরুয়া শিবির। উদয়াস্ত লড়াই শেষে রাজ্যে মোট ৭৭টি আসনের দখল নিয়েছিল বিজেপি। যদিও দিন বদলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সেই সংখ্যা ক্রমেই নিম্নমুখী হতে শুরু করেছে। বর্তমান সময়ে গেরুয়া শিবিরের দখলে রয়েছে ৭০টি আসন। অন্যদিকে, ক্রমেই শক্তি বৃদ্ধি হচ্ছে রাজ্য়ের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের।

অন্যান্যদের পাশাপাশি একুশের ভোটে জয় পেয়েছিলেন বিজেপির দুই সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক ও জগন্নাথ সরকার। তবে, সাংসদ পদ ধরে রাখতে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেন দু’জনেই। স্বাভাবিকভাবেই এক ধাক্কায় ৭৭ থেকে ৭৫-এ পৌঁছোয় গেরুয়া শিবিরের আসন সংখ্যা। এরপর একে একে পাঁচ বিধায়ক গেরুয়া সংশ্রব ত্যাগ করে ঘাসফুল শিবিরে নাম লেখান। সেই তালিকার শীর্ষে রয়েছেন কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক মুকুল রায়। এরপরেই রয়েছেন বড়জোড়ার বিধায়ক তন্ময় ঘোষ, বাগদার বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস, কালিয়াগঞ্জের বিধায়ক সৌমেন রায় এবং রায়গঞ্জের বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী।

- Advertisement -

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর গেরুয়া শিবিরে উত্থান তৃণমূলকে চিন্তায় ফেললেও একাধিক বিধায়কের ঘরওয়াপসিতে স্বস্তি ফিরছে ঘাসফুল শিবিরে। অন্যদিকে, দলত্যাগ রুখতে গেরুয়া শিবির নয়া পন্থা অবলম্বন করলেও ফল যে অমিল তা স্পষ্ট হয়েছে কৃষ্ণকল্যানীর ঘরওয়াপিতেই। তবে, গেরুয়া শিবিরে ভাঙনে কী এখানেই ইতি পড়বে, না কি আরও ক্ষমতা হারাবে বিজেপি তা অবশ্য সময়ই বলবে।