ভরা স্টেডিয়ামে ম্যাচ নিয়ে সতর্কবার্তা

কোপেনহেগেন : ইউরো কাপে নির্ধারিত সীমার থেকে বেশি দর্শক স্টেডিয়ামে উপস্থিত থাকার প্রবণতা নিয়ে সতর্কবার্তা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)-র। সংস্থার ইউরোপ আঞ্চলিক অফিসের কার্ষনির্বাহী পরিচালক রব বাটলারের মতে, প্রতিযোগিতা থেকে সংক্রমণ ছড়ানোর প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে দ্রুত পদক্ষেপ করার পক্ষে সওয়াল করেছেন তিনি।

করোনাকালে স্টেডিয়ামে ঢোকার অনুমতি পেলেও দর্শকদের কিছু নির্দেশ মানতে হবে। এরমধ্যে শারীরিক দূরত্ব মেনে চলা, চিৎকার না করা, উদযাপনের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকার মতো বিষয় রয়েছে। কিন্তু ইউরোর বিভিন্ন ম্যাচে গ্যালারিতে এই নিয়ম ভাঙার ছবি আকছার নজরে এসেছে। এ প্রসঙ্গে বাটলার বলেন, কিছু দেশে করোনা সংক্রান্ত নিয়ম শিথিল করা হচ্ছে। আমরা বিষয়টি লক্ষ্য করেছি। এমনকি কিছু স্টেডিয়াম নির্ধারিত সীমার থেকে বেশি দর্শক প্রবেশে অনুমতি দিচ্ছে। সম্প্রতি ব্রিটিশ প্রশাসন জানিয়েছে, সেমিফাইনাল ও ফাইনালে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ৪০ হাজারের পরিবর্তে ৬০ হাজারের বেশি দর্শক উপস্থিত থাকবেন। নাম না করলেও বাটলার এই ঘোষণার দিকেই ইঙ্গিত করেছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

- Advertisement -

বাটলারের দাবি, ইতিমধ্যেই কিছু আয়োজক শহরে সংক্রামিতের সংখ্যা বেশ বেড়েছে। এই বিষয়ে আমাদের দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে। জটিলতা এড়াতে কোভিড টেস্ট, সংক্রমণের উৎসের খোঁজ চালানোর পাশাপাশি টিকাকরণের হার বাড়াতে হবে। হু-এর উদ্বেগ বাড়িয়ে ডেনমার্কে ইউরোর সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত ২৯ সংক্রামিতের খোঁজ মিলেছে। সেদেশের স্বাস্থ্য আধিকারিক অ্যানেতে লেকে পেত্রি জানিয়েছেন, এই সংক্রামিতরা ম্যাচগুলির সময় হয় অসুস্থ ছিলেন অথবা সংক্রামিত হয়েছেন। মনে করা হচ্ছে, এ ধরণের আরও সংক্রামিতের খোঁজ পাওয়া যেতে পারে। ডেনমার্কে প্রাথমিকভাবে ১৬ হাজার দর্শকের অনুমতি ছিল। যদিও বেলজিয়াম ম্যাচ থেকে তা বাড়িয়ে ২৫ হাজার করা হয়। হাঙ্গেরির বুদাপেস্টেও ৬৮ হাজার দর্শকাসনের পুসকাস এরিনায় ভরা স্টেডিয়ামে খেলা হচ্ছে।