দাবি মতো টাকা না পেয়ে বধূকে বিষ খাইয়ে খুনের অভিযোগ

316

রায়গঞ্জ: দাবিমতো পণের টাকা না মেলায় গৃহবধূকে বিষ খাইয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করার অভিযোগ উঠলো স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার সকালে রায়গঞ্জ শহর সংলগ্ন সুভাষগঞ্জ এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা পলাতক। স্থানীয় বাসিন্দারা ওই গৃহবধূর চিৎকার চেঁচামেচি শুনে ছুটে এসে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পেশায় হাই স্কুল শিক্ষক অজয় ঘোষের সঙ্গে রায়গঞ্জ শহরের কলেজপাড়া (ইন্দিরা কলোনি) এলাকার বাসিন্দা সঞ্চিতা নন্দী (ঘোষ) র তিন বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের এক বছরের পুত্র সন্তান রয়েছে। বিয়ের এক বছর পর থেকেই বাপের বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য সঞ্চিতাদেবীকে চাপ সৃষ্টি করতেন স্বামী অজয় ঘোষ। রায়গঞ্জ শহরে একটি ফ্ল্যাট কিনবে বলে মেয়ের বাবার কাছ থেকে গতকাল ফোন করে টাকা চাওয়া হয়। সেই টাকা দেওয়ার জন্য মাস তিনেক সময় চেয়ে ছিলেন মৃত গৃহবধূর বাবা মাণিক নন্দী। কিন্তু তাদের বক্তব্য, সাত দিনের মধ্যে টাকা লাগবে। আর সেই টাকা না দেওয়ার জন্যই ওই বধুকে বিষ খাইয়ে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে বলে মৃত গৃহবধূর বাবার দাবি। মানিক নন্দী বলেন, ‘আমার মেয়েকে পণের টাকার জন্য খুন করা হয়েছে। আমরা অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।’ মৃতার বাবা শ্বশুরবাড়ির পাঁচজনের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়।রায়গঞ্জ থানার পুলিশ আধিকারিক জানান, পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে অভিযোগের ভিত্তিতে তল্লাশি শুরু হয়েছে। এদিন বিকেল পাঁচটা নাগাদ ওই গৃহবধূর মৃতদেহ পুলিশি ক্যামেরাম্যান ম্যাজিস্ট্রেট ও ময়নাতদন্তের চিকিৎসকের উপস্থিতিতে ময়নাতদন্ত হয়। পুলিশ সুপার সুমিত কুমার জানান, অভিযোগ পেয়ে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।