বিপ্লব মিত্র শপথ নিতেই পুজো দিলেন স্ত্রী

85

বিপ্লব হালদার, গঙ্গারামপুর : বিপ্লব মিত্র কোন দপ্তরের মন্ত্রী হতে পারেন তা নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে চায়ের দোকানে আড্ডায় চর্চা তুঙ্গে উঠেছিল। সোমবার সেই জল্পনার অবসান ঘটল। কৃষি বিপনন দপ্তরের পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন বিপ্লব মিত্র। এদিন বিপ্লববাবু শপথ নিতেই খুশির হাওয়া ছড়িয়ে পড়ে পরিবার, ছোটবেলার বন্ধু, অনুগামী সহ গঙ্গারামপুরবাসীর মধ্যে। সকাল থেকে টিভির পর্দায় বসেছিলেন পরিবারের লোকজন সহ ছোটবেলার বন্ধুরা। গৃহদেবতার কাছে পুজো দেন স্ত্রী বাসন্তী মিত্র। রাজভবনে বিপ্লববাবু পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতেই পরিবারের সদস্যরা একে অপরকে মিষ্টিমুখ করান। স্বামী পূর্ণমন্ত্রী হওয়ার পরেই বিপ্লববাবুর স্ত্রী বাসন্তীদেবী গৃহদেবতাকে পুজো দেন।

গৃহদেবতার কাছে পুজো দিয়ে বিপ্লব মিত্রের স্ত্রী বাসন্তী মিত্র বলেন, দীর্ঘদিন থেকে রাজনীতি করে আসছেন স্বামী। মানুষের কাজ করেছেন। আজকে একটা সম্মান পেলেন। মন্ত্রীত্ব পাওয়ায় ভীষণ আনন্দ লাগছে।

- Advertisement -

বিপ্লব মিত্রের দিদি বনানী মিত্র বলেন, ২০১১ সালে বিধায়ক হলেও মন্ত্রী হতে পারেনি। এবার মন্ত্রী পাওয়ায় আমরা খুশি। আমাদের খুবই আনন্দ হচ্ছে। বিপ্লব মিত্রের দাদা প্রলয় মিত্র বলেন, সারা জীবন রাজনীতির ময়দানে থেকে লড়াই করে গেছে ভাই। আজকে পূর্ণমন্ত্রী হওয়ায় আমরা খুশি।

বিপ্লব মিত্রের ছোটবেলার বন্ধু রতন সাহা বলেন, বিপ্লব মিত্রকে আমরা বাবলু বলে ডাকি। ছোট থেকে বাবলুর সঙ্গে গঙ্গারামপুর হাইস্কুলে লেখাপড়া করেছি। ছোট থেকে বাবলু রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়ে। বন্ধুরা  চাইতাম বাবলু রাজনীতির বড় কোনও পদে থেকে কাজ করুক। বিধায়ক বা মন্ত্রী হোক। ছোটবেলার সেই স্বপ্ন আজকে আমাদের পূর্ণ হল। ছোটবেলার বন্ধু মন্ত্রী হওয়ায় খুব আনন্দ হচ্ছে।

বিপ্লব মিত্রের ছেলেবেলার বন্ধু অলোক ঘোষ বলেন, বিপ্লব মিত্রের সঙ্গে আমরা একসঙ্গে খেলাধুলো করেছি। সে সময় আমরা বিপ্লব মিত্রকে বাবলু বলে ডাকতাম। বাবলু ক্রিকেট খুব ভালো খেলত। বাবলুদের কন্যালী নামে একটা সিনেমা হল ছিল। সেই সিনেমা হলে আমরা একসঙ্গে সিনেমা দেখতেও গিয়েছি। আজকে বাবলু অর্থাৎ বিপ্লব মন্ত্রী পাওয়ায় ৭০ বছর বয়সে এসে ভীষণ খুশি হলাম।

বন্ধু মানিক দেব বলেন, ছাত্র জীবন থেকে বিপ্লব রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হয়। যুব কংগ্রেসের সময় থেকে অবিভক্ত পশ্চিম দিনাজপুর জেলায় পরিচিত হয়ে ওঠে। তখন থেকে আমাদের মধ্যে বন্ধুত্ব। বিপ্লব পূর্ণমন্ত্রী হওয়ায় খুব ভালো লাগছে।

বিপ্লব মিত্রের ছোটবেলার বন্ধু নারায়ণ দাস বলেন, বিপ্লব ছোট থেকে পড়ালেখায় ভালো। কোনও বদ নেশা ছিল না। রাজনীতি নিয়ে চর্চা ছিল তাঁর। আজকে বিপ্লব মন্ত্রী হওয়ায় খুশি হয়েছি।

বিপ্লব মিত্রের ছোটবেলার আরেক বন্ধু বিপ্লব ঘোষ বলেন, ছোটবেলায় স্কুলে একসঙ্গে টিফিন খেয়ে বিপ্লব মিত্রের সঙ্গে বড় হয়েছি। বাবলুর উদ্যোগে মাঝে মধ্যে আমরা পিকনিক করতাম। আজকে মন্ত্রী হবার পর খুব আনন্দ হচ্ছে। ছোটবেলার দিনগুলি খুব মনে পড়ছে।