মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করা স্ত্রীকে খুনের অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

387

রায়গঞ্জ, ১৯ সেপ্টেম্বরঃ মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠেছে স্বামী বিরুদ্ধে। শনিবার ঘটনাকে ঘিরে রায়গঞ্জ থানার মহারাজা হাট সংলগ্ন আধিহার গ্রামে ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই গৃহবধূর নাম ললিতা মাহাতো (২৫)। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠায়। মৃতার গলায় শ্বাসরোধের এবং শরীরের একাধিক জায়গায় আঘাতের চিহ্ন ছিল বলে জানা গিয়েছে। ঘটনায় মহিলাকে খুন করা হয়েছে বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে অনুমান করছে। এদিন পুলিশি ক্যামেরাম্যান এবং ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে ময়নাতদন্তের পর মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

জানা গিয়েছে, বছর পাঁচেক আগে রায়গঞ্জ থানার মহারাজা হাট সংলগ্ন অধিহার গ্রামের বাসিন্দা প্রমোদ মাহাতোর সঙ্গে বিহারের কাটিহার জেলার বলরামপুর থানার কুশিমারি গ্রামের ললিতা মাহাতোর বিয়ে হয়। এরপর থেকেই দৈনিক স্ত্রীকে শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন করতেন বলে স্থানীয় গ্রামবাসীরা অভিযোগ করেছেন। এদিকে, মেয়ের মৃত্যুর খবর শুনে মৃতার বাবা রমেশ মাহাতো রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল মর্গে ছুঁটে এসেছিলেন।

- Advertisement -

মেয়ের এক ছেলে এবং দুই মেয়ের কথা চিন্তা করে মৃতার বাবা রমেশ মাহাতো জামাইয়ের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় কোনও অভিযোগ দায়ের করতে নারাজ। যদিও, রায়গঞ্জ থানার পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে। গ্রামবাসীদের মারফত জানা গিয়েছে, জামাইয়ের সঙ্গে এক লক্ষ টাকায় রফা করে মৃতার বাবা রায়গঞ্জ থানায় কোনও অভিযোগ দায়ের করেননি। টাকার বিষয়ে গৃহবধূর বাবাকে প্রশ্ন করা হলে, তিনি বিষয়টি পারিবারিক বলে এড়িয়ে গিয়েছেন। মৃতার আরেক আত্মীয় সুরোজ মাহাতো জানান, এক লক্ষ টাকার বিনিময়ে জামাইয়ের সঙ্গে রাফা করেছেন তাঁর কাকা। মৃতার স্বামী প্রমোদ মাহাতো জানান, তাঁর স্ত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তিনি খুন করেননি।