কনকনে ঠাণ্ডা রাজ্যজুড়ে, শৈত্যপ্রবাহের সতর্কতা জারি

326

কলকাতা: রাজ্যজুড়ে কনকনে ঠাণ্ডা অনুভূত হচ্ছে। সকাল থেকে উত্তরবঙ্গে হালকা কুয়াশা থাকলেও বেলা বাড়তেই রোদের ছটা দেখা যাচ্ছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তরবঙ্গের সব জেলার আবহাওয়া শুকনো থাকবে। তবে দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ারের কোনও কোনও জায়গায় হালকা থেকে মধ্যম মানের কুয়াশা থাকতে পারে। বাকি জেলাগুলিতেও কুয়াশার দাপট দেখা দিতে পারে। দৃশ্যমানতা ২০০ মিটারের নিচে নেমে যেতে পারে। সপ্তাহ শেষে দার্জিলিং-এ বৃষ্টি হতে পারে বলেও জানানো হয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী ২-৩ দিন রাতের তাপমাত্রার সেরকম কোনও পরিবর্তন হবে না। তারপর থেকে দিনের তাপমাত্রা ২-৪ ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়তে পারে বলে জানানো হয়েছে।

পশ্চিমী ঝঞ্ঝার ফলে উত্তুরে হাওয়া এ রাজ্যে প্রবেশ করেছে। বুধবার কলকাতার তাপমাত্রা সামান্য বাড়লেও তা ১১ ডিগ্রির ঘরেই ছিল। এদিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ৪ ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি কম। রাজ্যের বেশ কিছু জেলায় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে নেমে গিয়েছে। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী, গোটা রাজ্যই আগামী কদিন শীতে থাকবে। তবে বৃহস্পতিবার থেকে তাপমাত্রা সামান্য বাড়বে বলে জানা গিয়েছে। রাজ্যের একাধিক জেলায় শৈত্যপ্রবাহের সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দপ্তর।

- Advertisement -

আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী ২৪ ঘণ্টায় গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলিতে আবহাওয়া শুকনো থাকবে। প্রায় সবকটি জেলাতেই মাঝারি মানের কুয়াশা দেখা দিতে পারে। আগামী ৩-৪ দিনে রাতের তাপমাত্রার সেরকম কোনও পরিবর্তন হবে না। এরপর থেকে  তাপমাত্রা ২-৩ ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়তে পারে বলে জানানো হয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিম মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, পূর্ব বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদিয়ার কোনও কোনও জায়গায় শৈত্যপ্রবাহের পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে। বাঁকুড়া, দুই ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, বীরভূম, নদিয়ায় জারি করা হয়েছে শৈত্যপ্রবাহের হলুদ সতর্কতা।

এদিকে ফের পশ্চিমী ঝঞ্ঝা আঘাত হানতে চলেছে উত্তর পশ্চিম ভারতে। যার জেরে উত্তর রাজস্থান, পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, পশ্চিম উত্তর প্রদেশ, হিমাচলপ্রদেশ, জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখে আবহাওয়ার পরিবর্তন হবে। হিমাচলপ্রদেশ, জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখে তুষারপাতের সঙ্গে বৃষ্টিও হতে পারে। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাব আসতে পারে রাজ্যের উত্তরাংশেও। এর সঙ্গে পূবালী হাওয়া যুক্ত হয়ে সিকিম ও দার্জিলিং-এ সপ্তাহ শেষে বৃষ্টির সঙ্গে তুষারপাত হতে পারে বলেও জানানো হয়েছে।