দল বদলের ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই আবার পুরানো দলে ফিরলেন রায়নার নড়ুগ্রাম অঞ্চলের বিজেপি কর্মীরা

795

বর্ধমান ৯ ফেব্রুয়ারিঃ দল বদলের খেলায় দেশের তাবড় নেতাদের হার মানালেন পূর্ব বর্ধমানের রায়নার নড়ুগ্রাম অঞ্চলের বিজেপি কর্মীরা। তারা নিজের দলের নেতাদের বিরুদ্ধে ধোঁকা দেবার অভিযোগ এনে গত বৃহস্পতিবার যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূল শিবিরে। এরপর ৪৮ ঘন্টা কাটতে না কাটতে ফের গেরুয়া শিবিরেই ফিরলেন নাড়ুগ্রাম অঞ্চলের শতাধীক বিজেপি কর্মী। এই ঘটনা জানাজানি হতেই ওই কর্মীদের নিয়ে ব্যাঙ্গ বিদ্রুপের জোয়ার বইছে সমগ্র রায়না জুড়ে। নাড়ুগ্রাম অঞ্চল বিজেপির বুথ সভাপতি কার্তিক সাঁতরা সহ শতাধীক বিজেপি কর্মী গত বৃহস্পতিবার তৃণমূল বিধায়কের নেপাল ঘোরুইয়ের হাত থেকে দলের পতাকা গ্রহণ করে তৃণমূল কংগ্রেস দলে যোগদান করেন।

দল বদলের ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই আবার পুরানো দলে ফিরলেন রায়নার নড়ুগ্রাম অঞ্চলের বিজেপি কর্মীরা| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India
এই ঘটনার পর  ৪৮ ঘন্টা কাটতে না কাটতে শনিবার ফের চিত্র নাট্যের বদল ঘটে গেল।  বিজেপি নেতাদের আহ্বানে শনিবার বিকালে ফের আবার গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলেন সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া নড়ুগ্রাম অঞ্চলের ওই সকল বিজেপি নেতা ও কর্মীরা। দল বদলের মূল কাণ্ডারি কার্তিক সাঁতরা বলেন, নাড়ুগ্রাম অঞ্চলের উন্নয়নের দাবি নিয়ে গ্রামের মানুষজনের সঙ্গে তিনিও বিধায়ক নেপাল ঘোড়ুইয়ের কার্যালয়ে গিয়েছিলেন। সেখানে চাপসৃষ্টি করে তাদের তৃণমূলের ঝান্ডা কাঁধে তুলে নিতে বাধ্য করা হয়েছিল। তারা কেউ মনেপ্রাণে তৃণমূলে যায়নি। বিজেপি কর্মীদের এই পাল্টি খাওয়া প্রসঙ্গে তৃণমূল  বিধায়ক নেপাল ঘোড়ুই বলেন, ‘কাউকেই ভয় দেখিয়ে তৃণমূলে যোগদান করানো হয়নি’।

- Advertisement -