বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদ করায় বৃদ্ধাকে পাথর দিয়ে থেঁতলে খুন

112

এটাওয়াহ: ফের বিতর্কে যোগীর রাজ্য, উত্তরপ্রদেশ। খুন, ধর্ষণ, রাহাজানি, নারী নির্যাতনে দেশের প্রথম প্রথম স্থান দখল করে থাকা উত্তরপ্রদেশে এবার পাথর দিয়ে মেরে খুন করা হল এক বৃদ্ধাকে। তাঁর ‘অপরাধ’ ছিল, হোলির অনুষ্ঠানের প্রতিবাদ করা। আর যোগী রাজ্যে এমনই আরও এক নৃশংস ঘটনার সাক্ষী থাকল দেশ।

গোটা দেশের মত উত্তরপ্রদেশেও পালিত হয়েছে রঙের উৎসব, হোলি। হোলির সেই উদযাপনে একটি দল মাত্রাতিরিক্ত শোরগোল করায় তাঁর প্রতিবাদ করেছিলেন ওই বৃদ্ধা। উত্তরপ্রদেশের ওটাওয়াহতে ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার। বাড়ির সামনে একদল যুবক প্রবল চিৎকার, চেঁচামেচি করায় তা বন্ধ করতে অনুরোধ করেছিলেন ওই বৃদ্ধা।

- Advertisement -

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় থানার অতিরিক্ত ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার জানান, বৃদ্ধা প্রতিবাদ করায় ক্ষিপ্ত হয় ওই যুবকরা। সকাল ১০টা নাগাদ বৃদ্ধার বাড়িতে চড়াও হয় তারা। লাঠি আর পাথর দিয়ে তাঁকে বেধড়ক মারধরও করে তারা। প্রবল মারে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় বৃদ্ধার। ওই বৃদ্ধার পরিবারের আরও দুই মহিলা ও তিন শিশু ছিল। বৃদ্ধাকে বাঁচাতে গেলে সেসময় উন্মত্ত যুবকদের লাঠির ঘায়ে তারাও আহত হয়।

অন্যদিকে, আহত ওই বৃদ্ধাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। তাঁর দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যে এহেন নৃশংস ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে নিন্দার ঝড় উঠেছে গোটা দেশে।