লোনের প্রতিশ্রুতিতে ২ লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তার মহিলা

415

বর্ধমান: গাড়ি কেনার জন্য লোনের ব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ২ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার হলেন এক মহিলা। ধৃতের নাম অসীমা সরকার ওরফে মামনি। তার বাড়ি বর্ধমান থানার সাধনপুরের আলুডাঙা এলাকায়। জেলার জামালপুর থানার পাঁচড়া গ্রাম নিবাসী প্রতারিত শেখ গোলাম হোসেনের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ শুক্রবার বিকালে বাড়ি থেকে অসীমাকে গ্রেপ্তার করে। সুনির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ শনিবার ধৃতকে বর্ধমান আদালতে পেশ করে। ভারপ্রাপ্ত সিজেএম ধৃতকে বিচার বিভাগীয় হেপাজতে পাঠিয়ে মঙ্গলবার ফের আদালতে পেশের নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, পাঁচড়া গ্রামের শেখ গোলাম হোসেনের সঙ্গে অসীমা ও তার স্বামীর দীর্ঘদিন ধরে পরিচয় রয়েছে। সেই সূত্রে তাদের বাড়িতে গোলামের যাতায়াত ছিল। বিডিও অফিসের মাধ্যমে যোগাযোগ করে গাড়ি কেনার জন্য গোলামকে লোনের ব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাস দেয় অসীমা। তিনি গোলামকে বলেন, লোন পেতে গেলে প্রথম তাঁকে ২ লক্ষ টাকা জমা করতে হবে। সেই কথা বিশ্বাস করে গোলাম অসীমাকে ওই টাকা দিয়ে দেয়। অভিযোগ, অসীমা লোনের ব্যবস্থা আর করে দিতে পারেনি। সেই কারণে গোলাম তার কাছে টাকা ফেরত চান। স্ট্যাম্প পেপারে চুক্তি করে টাকা ফেরত দেওয়ার আশ্বাসও দেয় অসীমা। তার পরথেকে দীর্ঘ সময় কেটে গেলেও অসীমা টাকা ফেরত দেয়নি। গোলাম টাকা চাইতে তার বাড়িতে গেলে অসীমা তাঁকে গালিগালাজ করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। এই ঘটনা বিষয়ে গোলাম সংশ্লিষ্ট থানায় জানালেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় তিনি সিজেএম আদালতে মামলা করেন। কেস রুজু করে তদন্তের জন্য জামালপুর থানার ওসিকে নির্দেশ দেয় আদালত। তারপরেই পুলিশ মামলা রুজু করে অসীমাকে গ্রেপ্তার করে।

- Advertisement -