অমানবিক! শিকলে বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার মহিলা

140

পুরাতন মালদা: মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় খোলা আকাশের নিচে গাছের গুঁড়িতে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে মধ্যবয়স্ক এক আদিবাসী মহিলাকে! অমানবিক এই দৃশ্য দেখে শেষে পুলিশকে খবর দেন কয়েকজন গ্রামবাসী। পরে পুলিশ সেখানে গিয়ে ওই মহিলাকে উদ্ধার করে। বুধবার এমনই চিত্র ধরা পড়ল পুরাতন মালদা থানার ভাবুক গ্রাম পঞ্চায়েতের কুতুবপুর গ্রামে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই আদিবাসী মহিলার নাম সুজি মুর্মু (৩৬)। তাঁর দুই ছেলে এবং এক মেয়ে রয়েছে। কয়েক বছর আগেই তাঁর স্বামী নন্দ টুডু মারা গিয়েছেন। এরপর থেকে ভাই আমিন মুর্মুর বাড়িতে থাকতেন সুজি। গত চার মাস আগে তিনি দুরারোগ্য মানসিক ব্যাধিতে আক্রান্ত হন বলে জানিয়েছেন পরিবারের লোকেরা।

- Advertisement -

ওই আদিবাসী মহিলার পরিবারের দাবি, মানসিক ভারসাম্যহীন থাকার কারণে সুজি মুর্মু আশপাশের বাড়ির গাছের ফুল, ফল পেড়ে নিচ্ছিলেন। যাঁকে তাঁকে ইটপাটকেল ছুঁড়ছেন। তাই প্রতিবেশীদের আক্রোশের ভয়ে বাধ্য হয়েই তাঁকে শিকলবন্দি করে রাখতে হয়েছিল। ডাক্তার দেখাতে প্রচুর টাকা খরচ হয়েছে। তাই এই অবস্থায় শিকলবন্দি করা ছাড়া আর কোনও পথ ছিল না বলে দাবি করেন বাড়ির লোকেরা।