মহিলাকে খুন, অভিযুক্ত প্রতিবেশীর বাড়িতে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ

99

মানিকগঞ্জ: আদিবাসী এক মহিলাকে খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত প্রতিবেশী যুবকের বাড়িতে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করল উত্তেজিত জনতা। বুধবার ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের দক্ষিণ বেরুবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীন ধরধরাপাড়া এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার আইসি অর্ঘ্য সরকার ও মানিকগঞ্জ আউট পোস্টের ওসি নূর হুসেইনের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশবাহিনী। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনায় অভিযুক্তের একটি শোবার ঘর ও দোকান ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা।

স্থানীয়দের একাংশ জানিয়েছেন, গত সোমবার গভীর রাতে এক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে বাড়ি ফেরেন ওই এলাকার আদিবাসী গৃহবধূ ককিলা মাল পাহাড়ি (৩০)। বাড়ি ফিরে দেখেন, তাঁর গোয়াল ঘরের দরজা খোলা রয়েছে। তখন তিনি দরজা বন্ধ করতে গেলেই সেখানে আগে থেকে উপস্থিত প্রতিবেশী যুবক বীরবল মাল পাহাড়ি ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। অস্ত্র দিয়ে তাঁর পেটে আঘাত করা হয়। তাঁর চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে এলে সেখান থেকে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত। স্থানীয়রা তড়িঘড়ি তাঁকে উদ্ধার করে জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে তাঁকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার সকালে তাঁর মৃত্যু হয়। সেই ঘটনা জানাজানি হতেই উত্তেজিত জনতা অভিযুক্তের বাড়িতে চড়াও হয়। অভিযুক্তের বাড়ির সকলে পলাতক রয়েছে। এলাকায় মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

- Advertisement -