৫ বছর পর নিজের ঘর ফিরে পেলেন মহিলা

103

চালসা: প্রায় পাঁচ বছর পর একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সহযোগিতায় পরিবারের কাছে ফিরলেন এক মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলা। তাঁকে ফিরে পেয়ে স্বভাবতই খুশি পরিবারের সদস্যরা।

জানা যায়, আলিপুরদুয়ার জেলার শামুকতলা এলাকার ওই মহিলা দীর্ঘ প্রায় পাঁচ বছর ধরে নিখোঁজ ছিলেন। পরিবারের লোকজন বহু জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও তাঁর কোনও সন্ধান পাননি। গত প্রায় দু’বছর ধরে ওই মহিলা চালসায় থাকতেন। ব্যবসায়ী ও পথচলতি মানুষদের সাহায্যে জুটতো খাওয়া দাওয়া। মহিলার হাতে ক্ষত তৈরি হয়েছিল। এরপর চালসার যুবক মায়াঙ্ক শর্মা গ্রিনভ্যালি জলপাইগুড়ি ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সংস্থার সম্পাদক পাপ্পু শীল ওই মহিলার কাছে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তবে ওই মহিলা নিজের ঠিকানা সঠিকভাবে বলতে পারেননি। গ্রিনভ্যালির তরফে ওই মহিলার বলা ঠিকানা অনুযায়ী সব জায়গায় খোঁজখবর শুরু হয়। সংস্থার তরফে শামুকতলা এলাকার প্রতিনিধির সঙ্গে যোগাযোগ করে ওই মহিলার পরিবারের সন্ধান পাওয়া যায়। বুধবার ওই মহিলার পরিবারের সদস্যরা চালসায় আসেন। চালসার মঙ্গলবাড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ওই মহিলাকে তাঁর পরিবারের লোকজন নিয়ে যান। এরজন্য গ্রিনভ্যালি সহ চালসার জনগণকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তাঁর পরিবার।

- Advertisement -

গ্রিনভ্যালি জলপাইগুড়ি ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশনের সম্পাদক পাপ্পু শীল জানান, তাঁরা মায়াঙ্ক শর্মার মারফত ওই মহিলার খবর পান। খোঁজাখুঁজির পর শামুকতলা এলাকায় ওই মহিলার পরিবারের সন্ধান পাওয়া যায়। এদিন পরিবারের লোকজন এসে ওই মহিলাকে বাড়িতে নিয়ে যান। আগামীতেও এই ধরনের সামাজিক কাজ চালিয়ে যাবেন বলে জানান পাপ্পু।