নয়াদিল্লি, ২৩ ফেব্রুয়ারিঃ দিল্লির শাহিনবাগে অবস্থান বিক্ষোভ ওঠার একদিন বাদেই দিল্লির জাফরাবাদ মেট্রো স্টেশন এলাকায় নতুন করে সিএএ বিরোধী আন্দোলন শুরু হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় প্রায় এক হাজার মহিলা মেট্রো স্টেশনের কাছে সিএএ বিরোধী স্লোগান দিতে শুরু করেন। এরপর সেখানে অবস্থানে বসে পড়েন তাঁরা। রবিবার সকালেও অবস্থান ওঠেনি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে শনিবারই ঘটনাস্থলে যান দিল্লি পুলিশের ডিএসপি (উত্তর পূর্ব) বেদপ্রকাশ সূর্য। কিন্তু কোনও সমাধান সূত্র মেলেনি। অন্যদিকে, পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠায় রবিবার সকাল থেকে জাফরাবাদ মেট্রো স্টেশন বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দিল্লি মেট্রো রেল কর্পোরেশন। জাফরাবাদ স্টেশনে কোনও ট্রেন দাঁড়াচ্ছে না। অন্যদিকে, সংরক্ষণ নিয়ে সুপ্রিমকোর্টের সাম্প্রতিক রায়ের বিরুদ্ধে রবিবার বনধের ডাক দিয়েছেন ভীম আর্মির প্রধান চন্দ্রশেখর। আন্দোলনকারীরা সেই বনধকেও সমর্থন জানিয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার সন্ধ্যায় জাফরাবাদ স্টেশনে আচমকা ওই মহিলারা জড়ো হন। তাঁদের হাতে ছিল জাতীয় পতাকা ও মাথায় ‘নো এনআরসি, নো সিএএ’ লেখা টুপি। প্রথমে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে সিএএ-এনআরসি স্লোগান দেওয়ার পর রাস্তায় বসে পড়েন তাঁরা। এর ফলে সিলামপুর থেকে মৌজপুর ও যমুনাবিহারগামী রাস্তা আটকে পড়ে। বন্ধ হয়ে যায় যান চলাচল।  খবর পেয়ে পুলিশ এসে বিক্ষোভকারীদের বুঝিয়ে অবস্থান তুলে নেওয়ার কথা বললেও কোনও কাজ হয়নি। রাতভর সেখানেই বসে থাকার পর রবিবার সকালে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে মিছিল বের করেন তাঁরা। পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে দেখে প্রচুর মহিলা পুলিশকর্মী মোতায়েন করা হয়েছে প্রশাসনের তরফে।