পঞ্চানন বর্মার মূর্তির কাজ শুরু শালকুমারহাটে

301

শালকুমারহাট: আলিপুরদুয়ার-১ ব্লকের শালকুমারহাটে মনীষী পঞ্চানন বর্মার মূর্তি বসানোর কাজ শুরু হল। এজন্য উদ্যোক্তারা মনীষীর জন্মভূমি খলিসামারি থেকে মাটি ও জল নিয়ে এসেছেন। সোমবার শালকুমারহাটের পুরাতন চৌপথিতে ওই মাটি ও জল দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে মূর্তির কাজ শুরু হয়।

শালকুমার-১ ও শালকুমার-২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা রাজবংশী সম্প্রদায় অধ্যুষিত এলাকায় পঞ্চানন বর্মার মূর্তি বসানোর দাবি দীর্ঘদিনের। তবে চলতি বছরে বাসিন্দাদের এই দাবি পূরণের জন্য এগিয়ে আসেন জেলা পরিষদের সহকারি সভাধিপতি মনোরঞ্জন দে।

- Advertisement -

তিনি এই মূর্তি বসানোর যাবতীয় ব্যয় ভার বহন করবেন বলে সম্প্রতি ঘোষনা করেন। তাঁর এই ঘোষনায় খুশি এলাকার হাজার হাজার মানুষ। এই মূর্তি বসানোর কাজে মনোরঞ্জন দের পাশে দাঁড়ায় শালকুমারহাটের মনীষী ঠাকুর পঞ্চানন বর্মা স্মৃতি রক্ষা কমিটি।

দুর্গাপুজোর আগেই মূর্তির কাজ শুরু হবে বলে স্থির হয়। তাই সংশ্লিষ্ট কমিটির একদল প্রতিনিধি রবিবার মাথাভাঙ্গার খলিসামারি গিয়ে মনীষীর জন্মভূমি থেকে কলসিতে করে মাটি ও জল নিয়ে আসে।

সোমবার শালকুমারহাটে আনুষ্ঠানিকভাবে মূর্তির কাজ শুরু হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন মনোরঞ্জন দে সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা। মনোরঞ্জন বাবু বলেন, ‘মনীষীর সঙ্গে এলাকার মানুষের আবেগ জড়িত রয়েছে। তাই মনীষীর জন্মভূমির মাটি ও জল দিয়েই মূর্তির কাজ শুরু করা হল।’ স্থানীয় মনীষী ঠাকুর পঞ্চানন বর্মা স্মৃতি রক্ষা কমিটির প্রতিনিধি তুষার কান্তি রায় বলেন, ‘জেলা পরিষদের সহকারি সভাধিপতির এই উদ্যোগকে আমরা সাধুবাদ জানাই। তাঁর উদ্যোগেই এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হতে চলেছে।’