ভারতসেরা চা বাগানে কুড়ি টাকায় একটিন জল কিনছেন শ্রমিকরা

85

জলপাইগুড়ি: টি বোর্ডের বিচারে ভারত সেরা চা বাগানের তকমা পেয়েছে জলপাইগুড়ি শহর সংলগ্ন ডেঙ্গুয়াঝার চা বাগান। অথচ এই চা বাগানেই হাজার দুয়েক শ্রমিকের জন্য পরিস্রুত পানীয় জলের ব্যবস্থা নেই। প্রতিদিনের তেষ্টা মেটাতে রীতিমতো গাঁটের কড়ি খরচা করে জল কিনতে হচ্ছে শ্রমিকদের। কুড়ি টাকাদরে একটিন জল কিনছেন শ্রমিকরা।যার যেরকম প্রয়োজন।

দিনপ্রতি ২০২ টাকা মজুরিতে এই জল কেনা যে কোনও ভাবেই সম্ভব নয় তা হাড়ে হাড়েই জানেন বাগান কর্তৃপক্ষ। জানেন স্থানীয় পঞ্চায়েত বা প্রশাসনের কর্তারাও। কিন্তু শ্রমিকদের এই ন্যূনতম প্রয়োজনটুকু মেটাতে কেউই কোনও পদক্ষেপ নেননি। তাই শ্রমিকদের অবস্থা অনেকটা শাটল ককের মতো। পরিস্রুত পানীয় জলের সমস্যা নিয়ে শ্রমিকরা বাগান পরিচালন কর্তৃপক্ষের দ্বারস্থ হলে তাদের পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষকে দেখিয়ে দেওয়া হয়। আবার পঞ্চায়েতের কাছে শ্রমিকরা গেলে তারা দেখিয়ে দেন বাগানের মালিক পক্ষকে। ফলে শ্রমিকরা যে তিমিরে আছেন সেই তিমিরেই থেকে যান বছরের পর বছর। যাঁরা টাকা দিয়ে জল কিনতে পারেন তারা কেনেন, যাঁরা তা পারেননা তাঁরা পাতকুয়োর দূষিত জল জল খান। রাকেশ ছেত্রী, কিশোর ওঁরাও, থানু ওঁরাও, ধরম মুন্ডা, মালতি তির্কীর মতো বাগান শ্রমিকরা জানান, নানা সমস্যায় জর্জরিত তাদের জীবন কাটাচ্ছেন তাঁরা। বাগানের ভেতরের রাস্তাও বেহাল। এই প্রসঙ্গে বাগানের ম্যানেজার জীবন পাণ্ডে জানিয়েছেন, পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ দায়িত্ব পালন না করাতেই এই অবস্থা। জেলা পরিষদের সহকারী সভাধিপতি দুলাল দেবনাথ অবশ্য বাগান কর্তৃপক্ষের উপরেই দায় চাপিয়ে জানিয়েছেন, বাগিচা শ্রম আইন অনুসারে ডেঙ্গুয়াঝার চা বাগান কর্তৃপক্ষ দায়িত্ব পালন করছে না।

- Advertisement -