দিল্লিতে কাজ করতে গিয়ে আক্রান্ত ইটাহারের বাসিন্দা, আতঙ্কে বাড়ি ফিরছেন শ্রমিকরা

221

রায়গঞ্জ ২৯ ফেব্রুয়ারিঃ দিল্লিতে কাজ করতে গিয়ে মাথায় ধারালো অস্ত্রের কোপ ও গুলিবিদ্ধ হয়ে জখম হন উত্তর দিনাজপুর জেলার ইটাহার ব্লকের পাজোল গ্রামের বাসিন্দা অজিত শেখ। এই ঘটনাটি ঘটে গত মঙ্গলবার। গুরুতর জখম অবস্থায় সেনা হাসপাতালে ভর্তি করে দিল্লি পুলিশ। খবর পেয়েই পরিবারের লোক দিল্লিতে গিয়ে তাঁকে উদ্ধার নিয়ে এসে শনিবার রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে।
বর্তমানে অজিত শেখ রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের শল্য বিভাগে চিকিৎসাধীন। আতঙ্কের ছাপ তাঁর মধ্যে স্পষ্ট। দীর্ঘদিন ধরে সেখানে কাজ করেন তিনি। এতটা ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি আগে কখনোই দেখেননি। তবে প্রাণে বেঁচে ফিরতে পারায় ফিরতে দিল্লির প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন অজিত শেখ ও তাঁর পরিবার।   এদিকে এক রাশ আতঙ্ক বুকে নিয়ে রাজধানী থেকে বাড়ি ফিরলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন প্রান্তের থেকে কাজের উদ্দেশ্য যাওয়া শ্রমিকরা। এদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বারসই ও রায়গঞ্জ স্টেশনে থিকথিক করছিল দিল্লি থেকে আসা শ্রমিকদের। রায়গঞ্জ ব্লকের গৌরী গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দা আকতার আলি বলেন, ছয় বছর ধরে দিল্লিতে নির্মাণের কাজ করছি। আমরা নির্মাণ কাজে ব্যস্ত ছিলাম আচমকাই বোম ও গুলির আওয়াজ শুনতে পেলাম আমাদের যাতে কোনো ক্ষতি না হয় তার জন্য নবনির্মিত ফ্ল্যাটে লুকিয়েছিলাম। চারদিন ধরে আমরা সেখান থেকে বের হতে পারিনি। অবশেষে পুলিশ গিয়ে আমাদের উদ্ধার করে ট্রেনে তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করে’। আরেক শ্রমিক রেজাউল ইসলাম বলেন, ‘জেলার অনেক শ্রমিক দিল্লিতে কাজ করেন। তারা যে কি অবস্থায় রয়েছে জানিনা। আগে বাড়ি ফেরার পর দিল্লিতে যাওয়ার জন্য মন ছটফট করত। এবার যে ছবি চোখের সামনে দেখলাম আদতে দিল্লিতে আর ফিরব কিনা ভেবে দেখব’।
রায়গঞ্জের বিধায়ক তথা কংগ্রেসের জেলা সভাপতি মোহিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘রায়গঞ্জ তথা উত্তর দিনাজপুর জেলার শ্রমিকদের দিল্লিতে আটকে থাকার কথা জানতে পারি। তারপরে আমি সমস্ত ঘটনা অধীর চৌধুরীকে জানাই তিনি আটকে থাকা শ্রমিকদের জেলায় নিয়ে আসার ব্যবস্থা করি’।