পুজোর বোনাস না দেওয়ার চক্রান্তের অভিযোগে বিক্ষোভ শ্রমিকদের

559

ধূপগুড়ি: মালিকপক্ষের বিরুদ্ধে অসহযোগিতা এবং পুজোর বোনাস না দেওয়ার চক্রান্তের অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখালেন প্লাইউড কারখানার শ্রমিকরা। বুধবার তৃণমূল কংগ্রেস প্রভাবিত আইএনটিটিইউসি-র নেতৃত্বে ধূপগুড়ি-ফালাকাটা গামী ২৭ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা।

শ্রমিকদের অভিযোগ, মালিকপক্ষ শ্রমিকদের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ করছেন এবং সেই অভিযোগকে সামনে রেখে মঙ্গলবার প্লাইউড কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হয়। কিন্তু মালিকপক্ষ অবশ্য গোটা ঘটনাটি অস্বীকার করেছে। মালিকপক্ষের পালটা দাবি, শ্রমিকরা ঠিকভাবে কাজ করছেন না। এমনকি মালিক-ম্যানেজার কাউকেই ন্যূনতম সম্মানও করছেন না। পুরো বিষয়টি তৃণমূল কংগ্রেসের ধূপগুড়ির নেতৃত্বদের জানানো হলেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। বাধ্য হয়ে লোকসানের মুখে কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

- Advertisement -

এদিন সকালে মোরঙ্গা চৌপথি এলাকায় ধূপগুড়ি-ফালাকাটা গামী জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন শ্রমিকরা। রাস্তায় বসে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। খবর পেয়ে ধূপগুড়ি থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে যায় এবং শ্রমিক নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা করে। প্রায় ঘণ্টাখানেক সড়ক অবরোধ থাকার পর ধূপগুড়ি থানার আইসি সুবীর কর্মকারের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেন শ্রমিকরা। এরপর আলোচনায় বসেন শ্রমিক নেতৃত্বরা।

আইএনটিটিইউসি নেতা তপন সরকার বলেন, ‘শ্রমিকদের বিরুদ্ধে কাজে ফাকি দেওয়া সহ অনৈতিক কিছু অভিযোগ তুলেছে এবং কোভিড-১৯’এর পরিস্থিতিতেও মালিকপক্ষ শ্রমিক ছাঁটাইয়ের উদ্দেশ্য নিয়েছে। শুধু তাই নয়, আর ৪৫ দিন পর দূর্গাপুজো, সেই উপলক্ষ্যে ন্যূনতম ৮.৩৩ শতাংশ বোনাস দেওয়ার কথা, কিন্তু তার আগেই মালিকপক্ষ বোনাস না দেওয়ার অছিলায় কারখানা বন্ধ করে দেয়। অপরদিকে, লকডাউনের মধ্যে ৪০ শতাংশ শ্রমিক নিয়ে কারখানা খোলা কথা থাকলেও শ্রমিকদের চাপে শেষ পর্যন্ত ৫৭ শতাংশ শ্রমিকদের নিয়ে কাজ শুরু করা হয়েছে বলেও দাবি মালিকপক্ষের।

উল্লেখ্য, শ্রমিক মালিক অসন্তোষের জেরে গত কয়েকমাস ধরেই ধূপগুড়ি ব্লকের খলাইগ্রাম এলাকার প্লাইউড ও রেজিন কারখানায় সমস্যা চলছে। যা নিয়ে একাধিকবার শ্রম দপ্তরের কার্যালয়ে বৈঠক হয়েছে। কারখানা মালিক সাত্তার আলি বলেন, ’একেই তো বৃষ্টি, তার উপর কাজে গাফিলতি হচ্ছে। যার জেরে কারখানা লোকসানে চলছে। তারপরও যদি সব কারখানা বোনাস দেয় তাহলে আমরাও বোনাস দেব।’ পাশাপাশি শ্রমিক নেতৃত্বের বিরুদ্ধে কাটমানি দাবি সহ একাধিক অভিযোগ তুলেছেন এবং পুজোর বোনাসের অছিলায় কারখানা বন্ধের প্রসঙ্গকে ভিত্তিহীন বলেও দাবি করেছেন তিনি।