অস্থায়ী কর্মীদের আন্দোলন, মেডিকেলে ব্যাহত রোগী পরিষেবা

297

রণজিৎ ঘোষ, শিলিগুড়ি: স্থায়ীকরণ, বেতন বৃদ্ধি সহ বিভিন্ন দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতির ডাক দিল উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অস্থায়ী কর্মী ইউনিয়ন। বুধবার সকাল থেকেই সংগঠনের সদস্যরা মেডিকেল সুপারের অফিসের বাইরে ধর্নায় বসেন। এই কর্মীদের আন্দোলনের জেরে মেডিকেলের চিকিৎসা পরিষেবা ব্যাহত হচ্ছে।

উত্তরবঙ্গ মেডিকেলে প্রায় ৩৫০ জন সাফাইকর্মী অস্থায়ীভাবে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন। সাফাইকর্মী হিসাবে নেওয়া হলেও ওই কর্মীদের দিয়ে ওয়ার্ড মাস্টার বিভাগ, বিভিন্ন অপারেশন থিয়েটার, জন্ম-মৃত্যু শংসাপত্র বিভাগ, প্যাথোলজি থেকে শুরু করে টিকিট কাউন্টার সব বিভাগেই কাজ করানো হচ্ছে। অর্থাৎ দক্ষ শ্রমিকের কাজ করেও তাঁরা সাফাইকর্মী হিসেবে সব মিলিয়ে মাসে ৭০০০-৭৫০০ টাকা বেতন পান। কাজ অনুযায়ী বেতন ও স্থায়ীকরণের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন হচ্ছে, প্রতীকী অনশনও হয়েছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ কোনও নজর দিচ্ছে না বলে অভিযোগ। তাই দাবি আদায়ের লক্ষ্যে এদিন থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য মেডিকেলের সুপারের অফিসের বাইরে ধর্নায় বসেছেন ওই কর্মীরা। এই বিষয়ে সংগঠনের সম্পাদক সজল দত্ত বলেন, ‘দাবি আদায়ের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই আমরা আন্দোলন করছি। কিন্তু কর্তৃপক্ষ আমাদের দাবিদাওয়া আদায়ের বিষয়ে কোনও আগ্রহই দেখাচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়েই আমরা অনির্দিষ্টকালের জন্য আন্দোলন শুরু করেছি। দাবি না মেটা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।’ এদিকে কর্মীদের আন্দোলনের জেরে চিকিৎসার জন্য মেডিকেলে আসা রোগীদের সমস্যায় পড়তে হচ্ছেয বহির্বিভাগের টিকিট কাউন্টার, অপারেশন থিয়েটার সহ বিভিন্ন বিভাগের সামনে রোগীদের দীর্ঘক্ষণ অপোক্ষা করতে দেখা গিয়েছে।

- Advertisement -

অন্যদিকে, হাসপাতাল সুপার ডা: কৌশিক সমাজদার বলেন, ‘আমরা এই কর্মীদের দাবিদাওয়ার সঙ্গে সহমত। বিষয়গুলি নিয়ে স্বাস্থ্যভবন এবং সংশ্লিষ্ট এজেন্সির সঙ্গেও কথা হয়েছে। কিন্তু এভাবে কাজ বন্ধ করে আন্দোলন এবং রোগীদের বিপাকে ফেলার চেষ্টাকে আমি সমর্থন করছি না।’