মৃত শিশুর অংশ গর্ভে থেকে যাওয়া অবস্থাতেই মহিলাকে ছুটি দেওয়ার অভিযোগ চিকিৎসকের বিরুদ্ধে

540

রায়গঞ্জ, ১ অগাষ্টঃ প্রসবের সময় মৃত সন্তানের অর্ধেক অংশ গর্ভে থেকে যাওয়া অবস্থাতেই মহিলাকে ছুটি দেওয়ার অভিযোগ উঠল চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। কর্তব্যরত গাইনির সঙ্গে মহিলার পরিবার কথা বলতে গেলে টাকা দিয়ে ব্যাপারটি মিটিয়ে নেওয়ারও চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ।
সিভিক ভলেন্টিয়ার পদে কর্মরত দীপঙ্কর ঘোষ জানান, তাঁর স্ত্রী সুজাতা ঘোষের গত ২০ জুলাই প্রসব বেদনাওঠায় রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কিছুক্ষণ পরে গাইনি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক  রাকেশ গোপ তাঁকে জানান তাঁর স্ত্রীর প্রসবের আগে গর্ভেই সন্তান মারা যাওয়ায় গর্ভপাত করিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বিষয়টিতে তাদের খটকা লাগে বলে জানান দীপঙ্কর বাবু। এরপর ২১ তারিখ সুজাতাকে তড়িঘড়ি ছুটি দিয়ে দেন ওই চিকিৎসক। কিন্তু সুজাতাকে বাড়িতে নিয়ে যেতেই প্রচণ্ড পেটব্যথা শুরু হয় তাঁর। তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় রায়গঞ্জের অন্য এক গাইনি চিকিৎসকের কাছে। তিনি আলট্রাসনোগ্রাফি করার পরামর্শ দেন। সেই রিপোর্টে দেখা যায় মৃত শিশুর দেহের একাংশ গর্ভেই রয়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সমস্ত রিপোর্ট নিয়ে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের সহকারি অধ্যক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন দীপঙ্কর ঘোষ। এই প্রসঙ্গে সহকারি অধ্যক্ষ সুরজিৎ মুখার্জি বলেন, ‘বিকেলে একটি অভিযোগপত্র পেয়েছি। একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে সাত দিনের মধ্যে সেই কমিটির কাছে রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে।
এদিন অভিযুক্ত চিকিৎসকের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন সুজাতার পরিবার। এদিকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের গাইনি চিকিৎসক রাকেশ গোপ বলেন, “যা বলার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেই বলব। এই মুহূর্তে আমি কোন মন্তব্য করব না।”

- Advertisement -