ফুটবল মাঠে ডবল ডিউটি পালমারের

ম্যাঞ্চেস্টার : কোল পালমার। ম্যাঞ্চেস্টার সিটি অ্যাকাডেমির সদস্য। এমনিতে বেশ সাদামাটা কেরিয়ার। কিন্তু একদিনে জোড়া ম্যাচ খেলে ফুটবল বিশ্বে আলোচনার কেন্দ্রে ১৯ বছরের এই স্ট্রাইকার।

শনিবার বার্নলের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে পালমারকে স্কোয়াডে রেখেছিলেন সিটি কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা। ম্যাচের শেষদিকে পরিবর্ত হিসেবে মাঠেও নামেন এই তরুণ স্ট্রাইকার। স্থানীয় সময় ৩টে থেকে সিনিয়র দলের ম্যাচ খেলেন পালমার। এরপর সাড়ে সাতটায় মাঠে নামেন সিটির যুব দলের হয়ে লেস্টার সিটির যুব দলের বিরুদ্ধে ওই ম্যাচে দুরন্ত হ্যাটট্রিক করে দলের জয়ে সাহায্যও করেছেন পালমার।

- Advertisement -

তারকা কোচ গুয়ার্দিওলার নজর কেড়েছে পালমারের খেলা। তাই মরশুমের শুরু থেকেই তাঁকে সিনিয়র দলের সঙ্গে রাখছেন এই স্প্যানিশ কোচ। গত অগাস্টে নরউইচ সিটির বিরুদ্ধে সিনিয়র দলের জার্সিতে প্রিমিয়ার লিগে অভিষেক হয়েছে তাঁর। ইএফএল কাপে ওয়েকম্ব ওয়ান্ডার্সের বিরুদ্ধে সিনিয়র দলের হয়ে প্রথম গোলটি করেছেন। এরপর শনিবার বার্নলে ম্যাচে ফের মাঠে নামার সুযোগ পান পালমার। সেই ম্যাচ শেষ হতেই ক্লাবের অ্যাকাডেমি স্টেডিয়ামে পৌঁছে যান। লেস্টারের বিরুদ্ধে প্রথমার্ধে জোড়া গোল করে দলকে এগিয়ে দেন। খেলা শেষের কিছুক্ষণ আগে হ্যাটট্রিক সম্পূর্ণ করেন। প্রোফেশনাল ডেভেলপমেন্ট লিগের ওই ম্যাচে লেস্টারকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে সিটির ছোটরা।

একদিনে জোড়া ম্যাচ খেলার সিদ্ধান্ত অবশ্য পালমার নিজেই নিয়েছেন। তাঁর কথায়, তিনটেয় সিনিয়র দলের হয়ে খেলার পর সাড়ে সাতটায় যুব দলের হয়ে হ্যাটট্রিক করা- সবমিলিয়ে দিনটা ভালোই গেল। আমি দুটো ম্যাচের মাঝে কতক্ষণ সময় আছে জানতাম। তাই দুটো ম্যাচেই খেলার অনুমতি চেয়েছিলাম। ওরা সেই সুযোগ আমাকে দিয়েছে। আমি সেটাই করেছি যেটা করতে পছন্দ করি, তাই কোনও অভিযোগ জানাতে পারি না। এভাবে সারাদিন অক্লান্তভাবে ফোকাস ধরে রাখা শক্ত। এছাড়া বাকিটা আমি উপভোগই করেছি।

সের্গেই আগুয়েরো যাওয়ার পর স্ট্রাইকার সমস্যায় ভুগছে সিটি। হ্যারি কেনকে কেনার পরিকল্পনাও সফল হয়নি। এমন অবস্থায় পালমারের উত্থান স্বস্তি দেবে সিটি ফুটবল গ্রুপকে।