নরেন্দ্রপুরে গণপ্রহারে যুবকের মৃত্যু, গ্রেপ্তার এক

156
প্রতীকী

সোনারপুর: পঞ্চমীর দিন গণপ্রহারে গুরুতর আহত হয়েছিলেন এক যুবক। নবমীর রাতে এনআরএস হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার নরেন্দ্রপুরের রেলিয়া ৩০ ফুট বাজারে। মৃত ওই যুবকের নাম চন্দন রায়। বাড়ি রিজেন্ট পার্ক থানার অন্তর্গত দক্ষিন আনন্দপুরে।সূত্রের খবর, পঞ্চমীর দিন রাতে নরেন্দ্রপুরে একদল যুবকের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়ে সে। ওই যুবকেরা তাঁর মাথায় লোহার রড দিয়ে আঘাত করে পায়ে দড়ি বেঁধে বাইকের সঙ্গে বেঁধে টানতে টানতে নিয়ে যায়। নরেন্দ্রপুর থানার টহলদারি পুলিশ অফিসার ও কর্মীরা ওই যুবককে উদ্ধার করে নীলরতন সরকার হাসপাতালে ভর্তি করে। নবমীর দিন রাতে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। ঘটনায় রিতেশ গুপ্ত নামে এক ব্যক্তিকেও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃত চন্দনের বিরুদ্ধে বছর তিনেক আগে বেশ কয়েকজন যুবক একটি বাইক চুরির অভিযোগ মামলা দায়ের করেছিল। পরিবার সূত্রে খবর, এই ঘটনার পর থেকেই আতঙ্কে দিন কাটাত চন্দন, খুব একটা জনসমক্ষে বের হতো না। পঞ্চমীর দিন রাতে তাঁকে রাস্তায় দেখতে পেয়ে ওই রিতেশ ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা তাঁর উপর চড়াও হয়। পুলিশ এই ঘটনায় একটি স্বতঃপ্রণোদিত খুনের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে। অভিযুক্ত রিতেশকে গ্রেপ্তার করলেও তাঁর অন্য সঙ্গীদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

- Advertisement -