প্ল্যান বি-তে বাজিমাতের ভাবনা ক্লপ-জিজুর

মাদ্রিদ : মঙ্গলবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে দ্বৈরথের আগে জয়ের অক্সিজেন পেয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদ, লিভারপুল।

শনিবার কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে বিশ্বের দুপ্রান্তে খেলতে নেমেছিল ইউরোপের দুই ফুটবল শক্তি। এইবারকে ২-০ গোলে হারিয়ে ছন্দে থাকার বার্তা দিল জিনেদিন জিদানের লস ব্ল্যাঙ্কোজ। আবার আর্সেনালের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচে ৩-০ জয়ে হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে পেল জুর্গেন ক্লপের লিভারপুল। তবে জয়ের পাশাপাশি দুই কোচের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি নিজেদের প্ল্যান বি-র সফলতা।

- Advertisement -

মরশুমের শুরু থেকে চোট-আঘাত সমস্যায় জর্জরিত লিভারপুল। রক্ষণে ভার্জিল ভ্যান ডাইক, জো গোমেজের অভাব বারবার টের পেয়েছেন কোচ ক্লপ। সঙ্গে যোগ হয়েছে আক্রমণভাগে মহম্মদ সালাহ, সাদিও মানেদের অফ ফর্ম। যার নিটফল গতবার ইপিএলে অশ্বমেধের ঘোড়া ছোটানো লিভারপুল মুখ থুবড়ে পড়েছে চলতি মরশুমে। তবে এত খারাপের মধ্যে ক্লপের প্রাপ্তি দিয়েগো জোটার দুরন্ত ফর্ম।

উলভস থেকে লিভারপুলে যোগদানের পর সেরা ছন্দে রয়েছেন পর্তুগিজ তারকা। আর্সেনালের বিরুদ্ধে প্রথমার্ধে গোল না পাওয়ার পর ফির্মিনোর পরিবর্তে জোটাকে নামিয়ে প্ল্যান বি-তে চলে যান ক্লপ। আর তাতেই বাজিমাত। মাঠে নেমে জোড়া গোলে জয়ের ভিত গড়ে দেন পর্তুগিজ তারকা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম লেগে রিয়ালের বিরুদ্ধে জোটাকে সামনে রেখে প্রতিআক্রমণাত্মক স্ট্র‌্যাটেজিতে জয়ের অঙ্ক কষছেন ক্লপ। জার্মান কোচের কথায়, প্রতিআক্রমণে আমরা সেরা। রক্ষণভাগও সেরা ছন্দে রয়েছে। আজ (আর্সেনাল ম্যাচ) আমরা ভালো খেলেছি। এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হবে।

একই ছবি রিয়াল শিবিরেও। চোট সমস্যায় এডেন হ্যাজার্ড, সার্জিও র‌্যামোস মাঠের বাইরে। তার ওপর সামনের দশ দিনে রিয়ালকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দুই লেগে খেলতে হবে লিভারপুলের বিরুদ্ধে। এর মধ্যে রয়েছে ১০ এপ্রিলের এল ক্লাসিকো। ফলে কঠিন সূচির সামনে দাঁড়িয়ে দলের ফুটবলারদের তরতাজা রাখতে হিমসিম খাচ্ছেন কোচ জিনেদিন জিদান। শনিবার ঝুঁকি নিয়ে এইবার ম্যাচে প্ল্যান বি-তে চলে গিয়েছিলেন জিজু। নামিয়ে দিয়েছিলেন মার্সেলো, ইসকো, এডার মিলিটাও, মার্কো অ্যাসেন্সিযোর মতো প্রথম দলে অনিয়মিত তারকাদের। আর তাঁদের হাত ধরেই রিয়াল ডাগআউটে নিজের ২৫০তম ম্যাচে জয়ে স্বাদ পেলেন ফরাসি কোচ। পাশাপাশি লা লিগার খেতাবি দৌড়ে প্রবলভাবে ঢুকে পড়ল রিয়াল মাদ্রিদ।

সামনে লিভারপুল ম্যাচ। তার আগে রিজার্ভ বেঞ্চের ফুটবলারদের পারফরমেন্স নিঃসন্দেহে স্বস্তি জোগাবে জিদানকে। তবে সেই চাপ থেকে কৌশলে দলের ফুটবলারদের আড়াল করলেন জিজু। এইবার ম্যাচের পর তাঁর মন্তব্য, এইবারের বিরুদ্ধে নামার আগে লিভারপুল ম্যাচের কথা মাথায় রাখিনি। আমরা এক একটা ম্যাচ ধরে এগোনোর চেষ্টা করছি। এইবারের বিরুদ্ধে দল ভালো খেলেছে। এই জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে আমরা লিভারপুল ম্যাচের প্রস্তুতি শুরু করব। আলাদা করে মার্সেলো ও মার্কো অ্যাসেন্সিযোর প্রশংসাও শোনা গেল জিদানের গলায়। সবমিলিয়ে একে অপরকে টেক্কা দিতে এখন প্ল্যান বি বড় অস্ত্র রিয়াল-লিভারপুল কোচের।