শিলিগুড়ির পুতুলের স্কুটিতে অন্য দিশা মেয়েদের

75

শিলিগুড়ি: এমএ পাশ। এলএলবি প্রথম বর্ষের ছাত্রী। শহরের চম্পাসারির ঢাকনিকাটার মেয়ে পুতুল বর্মন অনলাইন ফুড ডেলিভারির কাজ করে সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। এর আগে এমন কোনও মেয়ে অনলাইন ফুড ডেলিভারির কাজ করেছেন কিনা তা মনে করতে পারছে না অনেকেই। সাধারণভাবে পুরুষরাই শহর জুড়ে এই কাজের সঙ্গে যুক্ত। ছোট থেকেই নিজের পায়ে দাঁড়ানোর স্বপ্ন ছিল পুতুলের। বাংলায় এমএ করার পর বেসরকারি সংস্থায় চাকরি পান।

বাবা মায়ের ইচ্ছে ছিল এলএলবি করুন তিনি। তাই চাকরি ছাড়েন। যখন ফার্স্ট ইয়ার পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন তখনই লকডাউন। তিন দাদা আলাদা থাকেন। দিদির বিয়ে হয়ে গিয়েছে। বাবা গ্যাস গোডাউনে চাকরি করেন। খানিকটা পরিবারের জন্যই ফের চাকরির খোঁজে নামেন পুতুল। চাকরি মিলেও যায় অনলাইন ফুড ডেলিভারি সংস্থা জোম্যাটোয়। প্রাথমিক কিছু অসুবিধে কাটিয়ে এখন নিজের কাজে অনেকটা স্বচ্ছন্দ তিনি। দু’সপ্তাহ হল স্কুটিতে ডেলিভারি বাস্কেট নিয়ে শহরের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত ছুটছেন পুতুল। গ্রাহকরাও পুতুলের পরিষেবায় খুশি। পুতুল জানান, এই কাজে তাঁর অভিজ্ঞতা খুব ভালো। প্রত্যেক বাড়ি, রেস্টুরেন্ট থেকে বেশ সমর্থন পাচ্ছেন তিনি।

- Advertisement -