জকোভিচের সোনালি স্বপ্ন ভাঙলেন জেরেভ

টোকিও : ‘তুমি সর্বকালের অন্যতম সেরা। এই ফলের জন্য আমি দুঃখিত।’

নোভাক জকোভিচের ক্যালেন্ডার গোল্ডেন গ্র‌্যান্ড স্লামের সম্ভাবনা শেষ করে ক্ষমা চেয়ে একথা বলেন জার্মান তরুণ আলেকজান্ডার জেরেভ। শুক্রবার টোকিওর আরিয়াকে টেনিস পার্কের সেন্ট্রাল কোর্টে ২০ গ্র‌্যান্ড স্ল্যামের মালিক জোকারকে সেমিফাইনালে ১-৬, ৬-৩, ৬-১ সেটে হারালেন জেরেভ। এদিন মিক্সড ডাবলসের সেমিফাইনালেও এলিনা ভেসনিন ও আন্দ্রে কারাৎসেভ জুটির কাছে ৬-৭ (৪/৭), ৫-৭ সেটে হার মানলেন জকোভিচ ও তাঁর সঙ্গী নিনা স্টোজানোভিচ।

- Advertisement -

টেনিসের পরিভাষায় একই বছরে চারটি গ্র‌্যান্ড স্ল্যামের পাশাপাশি অলিম্পিকে সোনা জেতাকে ক্যালেন্ডার গোল্ডেন গ্র‌্যান্ড স্লাম বলা হয়। ১৯০৫ সালে চতুর্থ গ্র‌্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চালু হওয়ার পর ১১৬ বছরে পুরুষ-মহিলা মিলিয়ে স্টেফি গ্রাফ (১৯৮৮) ছাড়া আর কেউই এই কৃতিত্ব দেখাতে পারেননি। এবছর ইতিমধ্যে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন, ফরাসি ওপেন এবং উইম্বলডন জিতেছেন জকোভিচ। ফলে টোকিওয় সোনা জিততে পারলে প্রথম পুরুষ হিসেবে ওই নজির গড়ার পথে আরেক ধাপ এগিয়ে যেতেন তিনি।

এদিন শুরুটা সেভাবেই করেছিলেন ৩৪ বছরের জকোভিচ। মাত্র ৩৭ মিনিটে দশ বছরের ছোট জেরেভকে ৬-১ সেটে উড়িয়ে দেন। এমনকি হতাশা মেটাতে জেরেভকে শূন্য গ্যালারি লক্ষ্য করে বল মারতেও দেখা যায়। যদিও সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে পরের দুই সেটে এবছর দুর্দান্ত ফর্মে থাকা জোকারকে হারিয়ে শেষ হাসি হাসলেন তিনি। এর আগে অলিম্পিকে সোনা জিততে পারেননি জকোভিচ। লন্ডনে সেমিফাইনাল এবং রিওতে প্রথম রাউন্ডে হেরেছেন। টোকিওতেও তার কোনও বদল হল না।

কাকতালীয় ভাবে, ১৯৮৮ সালে সিওল অলিম্পিকে স্টেফি গ্রাফের পর আর কোনও জার্মান অলিম্পিকে সিঙ্গলসে ফাইনালও খেলতে পারেননি। ৩৩ বছর পর সেই খরা কাটানোর পথে জেরেভের প্রতিপক্ষ রাশিয়ান অলিম্পিক কমিটির কারেন খাচানোভ। এদিন অন্য সেমিফাইনালে স্পেনের পাবলো কারেনো বুস্তাকে ৬-৩, ৬-৩ স্ট্রেট সেটে উড়িয়ে দিলেন এই রাশিয়ান। শনিবার বুস্তার বিরুদ্ধে ব্রোঞ্জের ম্যাচে নামবেন জকোভিচ।